অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১লা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ২রা জিলক্বদ, ১৪৩৯ হিজরী

আগাছা পরিস্কার করে এগিয়ে যেতে হবে’ : প্রধানমন্ত্রী

Print

স্টাফ রিপোর্টার : সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাজের গতি আরও বাড়ানোর ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, দেশের উন্নয়ন করতে গেলে কর্মক্ষেত্রে অনেক বাধা আসবে, বিপদ আসবে। দেশের ক্ষতি করে এমন মানুষও দেশে জন্মায়। এসব আগাছা পরিস্কার করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।
বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সই অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের যেসব দেশ এমডিজি সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ তাদের মধ্যে অন্যতম। এখন আমাদের লক্ষ্য এসডিজি অর্জন করা। লক্ষ্য পূরণ করতে হলে এসডিজির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ যে খাতগুলো রয়েছে সেগুলোতে সাফল্য অর্জন করতে হবে।
তিনি বলেন, আমাদের এ প্রকল্পগুলো একটা আরেকটার পরিপূরক হিসেবে কাজ করছে। এসব লক্ষ্য অর্জনে আমরা পথ প্রদর্শকের কাজ করি। সরকারি কর্মকর্তাদের দায়িত্ব সেই লক্ষ্য অর্জনে দায়িত্বের সাথে কাজ করা।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, যারা বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলেছিল তাদের আমরা উপযুক্ত জবাব দিতে পেরেছি। আমরা বলি, বাংলাদেশ পারে, পারবে। এজন্য বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল।
‘জাতির পিতা এদেশ স্বাধীন করে দিয়ে গেছেন। আর দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করাই আমাদের লক্ষ্য। বন্দীশালায় বসে আমি রচনা করেছিলাম ক্ষমতায় গেলে আমাদের কী কী করতে হবে।’
শেখ হাসিনা বলেন, এমডিজি বাস্তবায়নে যেমন দক্ষতা দেখিয়েছি। এসডিজি অর্জনেও তেমন দক্ষতা দেখাতে পারব। একটি মানুষও অশিক্ষিত থাকবে না, গৃহহারা থাকবে না। স্বাস্থ্যসেবা বঞ্চিত হবে না, ক্ষুধায় কষ্ট পাবে না।
তিনি বলেন, আমরা রাজনীতি করি মানুষের জন্য, দেশের জন্য। এটা কিন্তু ভোগ বিলাসের জন্য নয়। মানুষের সেবা করার জন্যই আমরা রাজনীতি করি।
শেখ হাসিনা বলেন, সাহস নিয়ে কাজ করলে কোনো কিছুই বাধা হতে পারে না। যেমন পদ্মাসেতু আমাদের সবচেয়ে বড় প্রমাণ। একটা কাজই আমাদের অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যাবে।
তিনি বলেন, শুধুমাত্র একটি ব্যাংকের এমডি পদের লোভে দিয়ে পদ্মা সেতুতে বিশ্বব্যাংকের টাকা আটকে দেওয়া হলো। অথচ পদ্মা সেতুতে কোনো দুর্নীতি হয়নি।
প্রধামনমন্ত্রী বলেন, সেই পদ্মা সেতু এখন দৃশ্যমান। যারা ফলে বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশের মর্যাদা পাল্টে গেছে। এখন বাংলাদেশকে বিশ্ববাসী অন্য চোখে দেখে।
তিনি বলেন, বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির ফল আমরা পাচ্ছি। প্রশাসনে কাজের মান ভালো হচ্ছে। কাজের মান উন্নতি হচ্ছে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে এ দেশের মানুষকে উন্নত জীবন দেয়া। আন্তরিকতা থাকলে যেকোনো বাধাকে অতিক্রম করে এগিয়ে যাওয়া সম্ভব। আমরা তা প্রমাণ করেছি।
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বেগম ইসমত আরা সাদেক, মন্ত্রিপরিষদ সচিব সফিউল আলম ও প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব নজিবুর রহমান বক্তব্য রাখেন।




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.