অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী

ক্যাসিনো কান্ডে জড়িত নন মোল্লা আবু কাওছার : সিআইডি

Print

স্টাফ রিপোর্টার : ক্যাসিনোকান্ডে ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের সভাপতি ও সেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা আবু কাওছারের কোন সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে সিআইডি। অথচ এই ক্লাবেই খেলা হয়েছিল। প্রমাণ ও মিলে ক্যাসিনো খেলে অবৈধ অর্থ উপার্জন করে তা পাচারের চেষ্টা করছিল এনামুল হক এনু ও তার ভাই রুপন ভুঁইয়া। র‍্যাবের দেয়া চার অর্থপাচার মামলায় এই অভিযোগের প্রমাণ পেয়ে আদালতে অভিযোগপত্র ও দিয়েছে সিআইডি। তদন্তে এনু ও রুপন ছাড়াও ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক গোপাল সরকারের জড়িত থাকার ব্যাপারটি লক্ষ্য করেছে সিআইডি।

এনু ও রুপনের বিরুদ্ধে মামলা হলেও আসামির তালিকায় নাম আসেনি সাবেক যুবলীগ নেতা এ কে এম মমিনুল হকের। সিআইডির অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার মো. নাজিম উদ্দিন আল আজাদ বলেন, র‍্যাবের করা অর্থপাচারের মামলায় তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেয়া হয়েছে। ৪ মামলার আসামি ৫১ জন, কিন্তু মানুষ ১৮ জন। এরাই ঘুরিয়ে ফিরিয়ে ৪টি মামলার আসামি হয়েছেন।

অভিযোগপত্রে এনু ও রুপনের অবৈধ অর্থ উপার্জনের কথা বলা হয়েছে। এজন্য তারা মতিঝিলের ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে ক্যাসিনো খেলতো এমন তথ্য ও উঠে এসেছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মেহেদী জানান, আসামিরা সকলেই সঙ্ঘবদ্ধ হয়ে ক্যাসিনো খেলা পরিচালনা করেছে, অবৈধ অর্থ পাচারের উদ্দেশ্যে তা গোপন করে রেখেছিল।

এদিকে মামলায় এনু ও রুপনসহ ক্লাবের ম্যানেজার, তাদের বন্ধু ও কর্মচারীদের আসামি করা হয়েছে। এছাড়াও ক্লাবের সভাপতি গোপাল সরকারের বিরুদ্ধে ও মামলা হয়েছে। কিন্তু আসামি করা হয়নি ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও সাবেক সেছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা আবু কাওছারকে। এ বিষয়ে মো. মেহেদী বলেন, মামলার তদন্তে ওনার সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি। তাই অভিযোগপত্রে তার নাম আসেনি।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.