অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৫ই আষাঢ়, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা শাওয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

‘ট্রাম্প না বললে কোনো নারীই ফাইনালিস্ট হতে পারতেন না’

Print

অনলাইন ডেস্ক : একের পর এক খবর বেরিয়ে আসছে। সেসব খবরে বিশ্বজুড়ে চলছে তোলপাড়। এরই ধারাবাহিকতায় আরো একটি খবর প্রকাশ হলো মিডিয়ায়। ট্রাম্পের নিজের প্রতিষ্ঠান মিস ইউনিভার্স প্রতিযোগিতা আয়োজন করে। সেখানে তিনি বাদামি ও কৃষ্ণাঙ্গদের বাদ দিয়ে শ্বেতাঙ্গ বিশেষ করে পূর্ব ইউরোপের মেয়েদের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় সুযোগ করে দিতেন বলে ‘রাশান রুলেট: দ্য ইনসাইড স্টোরি অব পুতিনস ওয়ার অ্যান্ড দ্য ইলেকশন অব ডোনাল্ড ট্রাম্প’ বইয়ের উদ্ধৃতিতে অভিযোগ করা হয়েছে।
সুন্দরী প্রতিযোগিতায় কোনো কোনো সময় ট্রাম্প বিচারকদের রায় বদলে এক প্রতিযোগীর স্থানে অন্যজনকে সুযোগ করে দিতেন বলে বইয়ে দাবি করা হয়েছে। তবে ট্রাম্পের তালিকায় বাদ পড়া বেশিরভাগ নারীই ছিলেন বাদামি বা কালো চামড়ার।
মার্কিন ম্যাগাজিন মাদার জোনসে বৃহস্পতিবার বইটির বেশ কিছু উদ্ধৃতি ছাপা হয়, যেখানে ট্রাম্পের ২০১৩ সালের রাশিয়া ভ্রমণের উল্লেখ আছে। মিস ইউনিভার্স সুন্দরী প্রতিযোগিতা উপলক্ষে সেবছর মস্কোর ক্রাসনগর্সক গিয়েছিলেন তিনি।

ইয়াহু নিউজের প্রধান অনুসন্ধানী প্রতিবেদক মাইকেল ইসিকফ ও মাদার জোনসের ওয়াশিংটন ব্যুরো প্রধান ডেভিড কর্নের লেখা বইটিতে রাশিয়ায় ট্রাম্পের ব্যবসায়িক যোগাযোগগুলোর ওপর বেশি আলোকপাত করা হলেও সেখানেই সুন্দরী প্রতিযোগিতার ব্যবস্থাপনায় তার ভূমিকার কথাও উঠে এসেছে। নিজের প্রতিষ্ঠানের আয়োজিত সুন্দরী প্রতিযোগিতায় কে সেরা হবেন, ট্রাম্পই তা ঠিক করে দিতেন বলে ইসিকফ ও কর্ন তাদের বইতে দাবি করেন। ১৩ মার্চ থেকে বইটির আনুষ্ঠানিক বিক্রি শুরু হবে। ট্রাম্প না বললে কোনো নারীই ফাইনালিস্ট হতে পারতেন না বলে দাবি লেখকদের।




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.