অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪১ হিজরী

বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশ চিনিয়েছেন মাহফুজ

Print

দৈনিক চিত্র প্রতিবেদক:
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজিতে (আইআইটি) পড়ছেন মাহফুজুল হক শাওন। এ বিষয়ে পড়াশোনা করে অন্যরা যেখানে খেলাধুলার কথা চিন্তাও করতে পারে না, সেখানে পড়াশোনার পাশাপাশি খেলাধুলা তার জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ফুটবল এবং দৌড়ে সফলতার স্বাক্ষর রাখা এই তরুণ এবার বিদেশের মাটিতে নিজেকে চিনিয়েছেন।
সম্প্রতি ভারতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক দৌড় প্রতিযোগিতা ‘আলট্রা টাফম্যান ডেজার্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জয়সালমির-২০১৮’ এবং ‘টাটা স্টিল কলকাতা ২৫ কিমি-২০১৮’ শেষ করে দেশে ফিরেছেন। রাজস্থানের জয়সালমির মরুভূমিতে অনুষ্ঠিত হওয়া ‘আলট্রা টাফম্যান ডেজার্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জয়সালমির-২০১৮’-এর বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ থেকে মাত্র দুজন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। এর মধ্যে ১৬১ কিলোমিটার ক্যাটাগরিতে পুরো বিশ্ব থেকে মাত্র চার প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। যাদের একজন জাবির মাহফুজুল হক শাওন। মাহফুজ ‘আলট্রা টাফম্যান’ উপাধি পেয়েছেন। অপর বাংলাদেশি ‘হাফ টাফম্যান’ উপাধিপ্রাপ্ত তারিকুল ইসলাম রানা ৫০ কিলোমিটার ক্যাটাগরিতে অংশ নেন। ‘মরুভূমির মতো জায়গায় মাত্র ৩৪ ঘণ্টার মধ্যে ১৬১ কিমি দৌড়ে শেষ করতে পারা চ্যালেঞ্জিং বটে। অধিকাংশ দৌড়বিদ সাহস করে না।’ বলছিলেন মাহফুজ শাওন।

মাহফুজ জয়সালমিরে পৌঁছানোর আগ পর্যন্ত ২৫-২৬ ঘণ্টার ভেতরে দৌড় শেষ করতে চেয়েছিলেন; কিন্তু সেখানে পৌঁছে আবহাওয়া সম্পর্কে জানার পর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দৌড় শেষ করতে পারার শঙ্কা চেপে বসে। ভোরবেলা দৌড় শুরু করার পর সেই শঙ্কা বাস্তবে রূপ নেয়। তিনি বলেন, ‘আমি ঘাবড়ে যেতে শুরু করি এই ভেবে যে, এখনই জমে যাচ্ছি, তাহলে সারারাত কীভাবে সার্ভাইভ করব!’

এদিকে দুপুরে রোদ ওঠার পর অস্বাভাবিক গরমে শরীরের তাপমাত্রা বাড়তে থাকে। একপর্যায়ে শরীর নিজে থেকেই নিস্তেজ হওয়া শুরু করে। এমন অবস্থায় ছোট ছোট বিরতি নিয়ে লক্ষ্যে এগিয়েছেন। কিন্তু রাতে তাপমাত্রা মাইনাসে চলে গেলে ১০৪ কিলোমিটার শেষে বাধ্য হয়েই তাকে ম্যাসাজ নেয়ার জন্য কিছুক্ষণ থামতে হলো। ঠা-ার ভেতরে এই থামাটাই কাল হয়ে গেলো! বলেন, ‘ম্যাসাজ নিয়ে যেই দাঁড়াতে যাব, ওমনি আমার সব মাসল জমে যাওয়া শুরু করল। তখন শেষ করতে পারাটাই আমার জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াল।’

কিন্তু তিনি দমে যাওয়ার পাত্র নন। পরদিন সকাল ছয়টায় ঘুম থেকে উঠে স্টার্টিং পয়েন্ট থেকে আবার দৌড় শুরু করেছেন। সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দূরত্বকে যতই কমিয়ে আনতে চেষ্টা করেছেন শরীর ততই বেঁকে বসতে চেয়েছে। মাহফুজ বলেন, ‘অবশেষে নির্ধারিত সময়ের কিছু আগে যখন ফিনিশিং লাইনে ঢুকলাম, তখন দেখলাম রানা ভাই ও টাফম্যান টিম আমার জন্য অপেক্ষা করছে। আমি কি খুশি হব, তারা আমার চেয়ে বেশি খুশি।’

অন্যদিকে ‘টাটা স্টিল কলকাতা ২৫ কিলোমিটার-২০১৮’ তেও সফল মাহফুজ। ৪:১৪ কিলোমিটার গতির সঙ্গে ১:৪৫:৩৩ সময় নিয়ে ১৮-২৫ বছর বয়সের ক্যাটাগরিতে ১৯তম স্থান অর্জন করেছেন। বাংলাদেশ থেকে ১৭ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করেন। যাদের লক্ষ্য ছিল বিজয়ের মাসে দেশের পতাকা গর্বের সঙ্গে মেলে ধরা। মাহফুজ জানান, তাদের লক্ষ্য পূরণ হয়েছে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাথলেটিকস টিমের এই সদস্য ২০১৮ সালের মার্চে অনুষ্ঠিত ‘ঢাকা হাফ ম্যারাথন’-এ ৬৫০ জন প্রতিযোগীর মধ্যে তৃতীয় হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় গত চার বছরে ৮০০ মিটার স্প্রিন্টে অংশ নিয়ে যথাক্রমে দ্বিতীয়, প্রথম এবং তৃতীয় হন। এ ছাড়া ১৫০০ মিটার স্প্রিন্টে দুবার প্রথম এবং দুবার দ্বিতীয়, ৫০০০ ও ১০০০০ মিটার স্প্রিন্টে তিনবার প্রথম এবং একবার দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন। আর ২০১৫ এবং ২০১৬ সালে যথাক্রমে ১৮ ও ২০ পয়েন্ট নিয়ে ব্যক্তিগত পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন। এদিকে ৪x৪০০ মিটার দলীয় স্প্রিন্টে তিনবার চ্যাম্পিয়ন এবং একবার রানার্সআপ এবং ৪ী১০০ মিটার দলীয় স্প্রিন্টে একবার চ্যাম্পিয়ন ও একবার রানার্সআপ। অ্যাথলেটিকস-এ ২০১৫-২০১৮ এই চার বছরে দলীয়ভাবে আ ফ ম কামালউদ্দিন হল চ্যাম্পিয়ন হয় এবং ফুটবল-এ ২০১৫ ও ১৬ সালে রানার্সআপ হয়, যে দলের অন্যতম সদস্য মাহফুজ।

মাহফুজ এখন বিদেশের মাটিতে দেশের নাম উজ্জ্বল করতে চান। আন্তর্জাতিকভাবে অনুষ্ঠিত হওয়া ২২০ কিমির আলট্রা ম্যারাথন এবং মরোক্কোর সাহারা মরুভূমিরতে ২৫৭ কিমির মালটি স্টেজ আলট্রা ‘ম্যারাথন ডেস সেবলস’-শেষ করে নিজেকে প্রমাণ করাই তার মূল টার্গেট। তবে আশঙ্কার কথা হচ্ছে, এসব প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা অনেক ব্যয়বহুল। এ জন্য তাকিয়ে থাকতে হবে স্পন্সরের দিকে।

দৈনিক চিত্র/এমএইচ




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.