অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ই রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

মামলা আর কোন্দলে স্থবির মহানগর বিএনপি

Print

দৈনিক চিত্র রিপোর্ট : স্থবির হয়ে আছে ঢাকা মহানগর বিএনপি। মহানগরের শীর্ষস্থানীয় দুই নেতা একাধিক মামলা কাঁধে নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। পাশাপাশি আছে কোন্দলও। কর্মীদের অনেকে দিক নির্দেশনাহীন।
৫ জানুয়ারির নির্বাচন প্রতিহতের আন্দোলনে ব্যর্থতার অভিযোগে ব্যাপকভাবে সমালোচিত হয়েছিলেন সাদেক হোসেন খোকা-এম এ সালামের নেতৃত্বাধীন ঢাকা মহানগর কমিটি। একপর্যায়ে তাঁদের ওই কমিটি ভেঙে দিয়ে গত বছরের ১৮ জুলাই বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভাপতি মির্জা আব্বাসকে আহ্বায়ক ও হাবিব উন নবী খান সোহেলকে সদস্যসচিব করে ঢাকা মহানগর বিএনপির নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়।
সংগঠনে গতি আনতে মহানগরের এই কমিটি করেছিল বিএনপি। বলা হয়েছিল, দু মাসের মধ্যে ওয়ার্ড-থানা কমিটিগুলো গঠন করে একটি পূর্ণাঙ্গ মহানগর কমিটি গঠন করা হবে। কিন্তু বাস্তবতা উল্টো।
এর মধ্যে চলতি বছরের ৫ জানুয়ারি থেকে লাগাতার অবরোধের ডাক দেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরপর থেকে কার্যত থেমে যায় কমিটি গঠন প্রক্রিয়া। কিন্তু আন্দোলনের মাঠেও ঢাকা মহানগর বিএনপির নেতা-কর্মীদের দেখা যায়নি। তবে মহানগর বিএনপির দুই শীর্ষ নেতা মির্জা আব্বাস ও হাবিব উন নবী খানসহ মহানগর বিএনপির অনেক নেতার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। আন্দোলনের শুরু থেকে আত্মগোপনে চলে যান মহানগরের আহ্বায়ক-সদস্য সচিবসহ বেশির ভাগ জ্যেষ্ঠ নেতা।
পরবর্তীতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে লড়েছিলেন মির্জা আব্বাস। তবে জামিন না পাওয়ায় ভোটের মাঠেও নামেননি তিনি। এখন পর্যন্ত আত্মগোপনে আছেন আব্বাস, সোহেল। এ সময়ের মধ্যে মহানগর বিএনপিকে সেভাবে কোনো কর্মসূচিও পালন করতে দেখা যায়নি। এই দুজন প্রকাশ্যে আসতে না পারায় দলে স্থবিরতা বাড়ছে বলে মনে করছেন নেতা-কর্মীদের অনেকে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.