অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ৩রা জিলহজ্জ, ১৪৩৯ হিজরী

সাকিবের ‘হালুমে’ জমজমাট বইমেলা

Print


নিজস্ব প্রতিবেদক :
লেখক হিসেবে অভিষেক হলো বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের। বইমেলায় তার লেখা প্রথম বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে সোমবার। এ সময় সেখানে সাকিব উপস্থিত ছিলেন। শিশুতোষ গল্প নিয়ে সাজানো বইটির নাম ‘হালুম’। বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের অটোগ্রাফসহ পাওয়া যাচ্ছে বইটি। সোমবার বেলা ৩টার দিকে সাকিব মেলায় প্রবেশের পর থেকেই জমজমাট হয়ে উঠে মেলা প্রাঙ্গণ। অটোগ্রাফসহ ভক্তদের বইটি হাতে তুলে দেন সাকিব। এসময় ‘সাকিব, সাকিব ধ্বনিতে মুখর হয়ে ওঠে বইমেলা। এর আগে বিভিন্ন পত্রিকায় কলাম লিখতে দেখা গেলেও এবারই প্রথমবারের মতো বই লিখলেন বাংলাদেশের এই ক্রিকেট সুপারস্টার।
এদিন পার্ল পাবলিকেশন্সের স্টলে শত শত দর্শকের ভিড়। সাকিব আল হাসানকে ঘিরে শুরু থেকেই পুরো মেলায় উৎসবের আমেজ আর দর্শকের উপস্থিতিতে জমজমাট হয়ে ওঠে। সেখানে বইপ্রেমী মানুষের সঙ্গে যোগ হয়েছিল সাকিব আল হাসানের ভক্তদের লম্বা লাইনও। তাকে একনজর দেখতে শত শত মানুষের ভিড়। কেউ কেউ ভিড় ঠেলে সেলফি তুলতে পেরেও আনন্দে ভাসেন।
পুলিশি বাঁধায় থামাতে পারেনি ভক্তদের সেলফি। আহসান হাবিব নামের এক ভক্ত জানান, শত মানুষের ভিড় ঠেলে তাকে একনজর দেখার জন্য ভিতরে ঢুকেছি। তবে ছবি তুলতে কেউ দিতে চায় না। অনেক অনুরোধ করে তার সাথে ছবি তুলতে পেরেছি বলে আমি সার্থক!
মেয়েরা ভিড়ের মাঝে সাকিবের সাথে ছবি তুলতে না পারলেও তাকে দর্শনেই খুশি। তারা বলেন, বিশ্বসেরাকে এক নজর দেখতে পারা অনেক সৌভাগ্যের ব্যাপার। টাইগার ক্রিকেটার সাকিবকে এক পলক দেখতে আসা শত শত তরুণ-তরুণীর ভিড় ঠেকাতে হিমশিম খেয়েছে পুলিশও।
এদিন বিকেল ৩টার দিকে বইমেলার ৬ নম্বর প্যাভিলিয়নে পার্ল পাবলিকেশন্সের স্টলে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন সাকিব। এর আগে গত রোববার রাতে নিজের ফেসবুক পেজে স্ট্যাটাস ও ভিডিও পোস্টে এ তথ্য দেন সাকিব আল হাসান। এ খবর শুনে হুড়োহুড়ি পড়ে যায় পার্ল পাবলিকেশন্সের স্টলের সামনে। সাকিব পৌঁছানোর আগেই জমতে থাকে শত ভক্তের লম্বা লাইন।
ভক্তরা বলেন, আমরা কাল রাতে ফেসবুকে দেখেছিলাম আজ সাকিব আসবেন। এজন্য অনেক আগে থেকে এসে স্টলের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। নিজের লেখা বই ‘হালুম’ এ সাকিব বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার হওয়ার গল্প বলেছেন। মা-বাবাকে উৎসর্গ করা এ বইয়ে সাকিব সবার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘রয়েল বেঙ্গল টাইগার যেভাবে আমাদের দেশকে সম্মানের সঙ্গে প্রতিনিধিত্ব করে, আমরা সবাই যেন সেই বাঘের মতো বাংলাদেশকে প্রতিটা ক্ষেত্রে প্রতিনিধিত্ব করতে পারি। আমি বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার হতে পেরেছি, তোমরাও চাইলে বিশ্ব জয় করতে পারবে।’




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.