অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

অবৈধ অনুপ্রবেশ রুখতে শব্দকামান বসালো গ্রিস

Print

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শরণার্থী প্রবেশ ঠেকাতে কড়াকড়ি আরোপের অংশ হিসেবে তুরস্ক সীমান্তে দুটি লং রেঞ্জ অ্যাকাউস্টিক ডিভাইসেস (এলআরএডি) বসিয়েছে গ্রিস। এর তীব্র শব্দবোমা মানুষকে বধির করে দিতে পারে। এসব যন্ত্রকে শব্দ কামান ও শব্দবোমা বলে অভিহিত করছেন শরণার্থী অধিকার নিয়ে কাজ করা কর্মীরা।

এলআরএডি থেকে সৃষ্ট শব্দতরঙ্গ জনস্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এ যন্ত্রের তরঙ্গ মানুষের কানে গেলে তীব্র ব্যথা থেকে শুরু করে ওই মানুষটি বধির হয়ে যাওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়াও নানা স্বাস্থ্যগত জটিলতার সম্মুখীন হবার সম্ভাবনা রয়েছে। মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর এলআরএডি ছাড়াও চারটি ড্রোন, ১৫টি থার্মাল ক্যামেরা, ৫টি জোডিয়াক বোট ও ১০টি সশস্ত্র মোবাইল গাড়ি মোতায়েন করা হয়েছে তুর্কি-গ্রিস সীমান্তে।

এছাড়াও গ্রিস সীমান্তে বাড়তি সতর্কতার অংশ হিসেবে তুরস্কের সঙ্গে পুরো সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করা হচ্ছে। ২৭ কিলোমিটার সীমান্ত এলাকাজুড়ে সামরিক বাহিনী ৮টি উড়ন্ত পর্যবেক্ষণ মেশিনও ব্যবহার করবে।

আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী, মানুষ কিংবা অন্যান্য পশু-পাখিকে ছত্রভঙ্গ করে দিতে এবং যেকোনো ধরণের দাঙ্গায় এলআরএডি ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। কিন্তু গ্রিস তাদের সীমান্তে এ যন্ত্র ব্যবহার করছে। এই যন্ত্র শুধুমাত্র বিমানবন্দরের দিকে আসতে থাকা বন্যপ্রাণী তাড়ানোর কাজে ব্যবহার করার নির্দেশনা রয়েছে। এছাড়াও শিল্প এবং গ্যাস ক্ষেত্রে এবং তেল-জ্বালানি ক্ষেত্রে এ যন্ত্র ব্যবহারের অনুমতি দেয়া হয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: