অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৭ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী

‘অস্ত্রদাতা, জোগানদাতা, মদদদাতাদের খুঁজে বের করতে হবে’

Print

অনলাইন ডেস্ক : ধর্মের নামে তরুণদের যারা জঙ্গিবাদে জড়াতে উসকানি দিচ্ছে, তাদের চিহ্নিত করার ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার বিকালে গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, যাদের কোনো অভাব নেই, ভালো খায়, ভালো পরে, যেখানে তাদের জন্য কোনো কিছুই অপূরণীয় থাকে না, সেখানে কেন তারা এটা করছে, এর যৌক্তিকতা কী?কারা তাদের পেছন থেকে উসকাচ্ছে?”

ঢাকার গুলশান ও কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় সাম্প্রতিক দুটি জঙ্গি হামলার ঘটনার প্রেক্ষাপটে এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এই তরুণদের কারা অস্ত্র দিচ্ছে, কারা অর্থ যোগাচ্ছে, তাদের তথ্য সম্মিলিতভাবে খুঁজে বের করার কথা বলেন তিনি।

মঙ্গোলিয়ার উলানবাটোরে সাম্প্রতিক এশিয়া-ইউরোপ (আসেম) শীর্ষ সম্মেলনের অভিজ্ঞতা তুলে ধরতে এই সংবাদ সম্মেলনে আসেন প্রধানমন্ত্রী। রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে তা সরাসরি প্রচার করা হয়।

তিনি বলেছেন, আতঙ্ক সৃষ্টি করাই ছিল গুলশানে হামলার উদ্দেশ্য। তবে মানুষের জীবন চলমান, জীবন থেমে থাকে না।

বিদেশিদের চাইতে দেশের অনেকেই বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে সক্রিয়―এমন মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশে যখন উন্নয়নের সোপানে পা দিয়েছে―তখন গুলশানের ঘটনা বিশ্বে বাংলাদেশে ভাবমূর্তিতে ছেদ পড়েছে।’
তিনি বলেন, ‘এসব সন্ত্রাসীদের অস্ত্রদাতা, জোগানদাতা, মদদদাতাদের খুঁজে বের করতে হবে। এজন্য সবার সহযোগিতা করতে হবে।’
তুরস্কের ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ সব সময় অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার বিপক্ষে। তুরস্কের জনগণ সেনা অভ্যুত্থান ব্যর্থ করে প্রমাণ করে দিয়েছে জনগণই সকল ক্ষমতার উত্স।
জঙ্গিবাদ দমনে জাতীয় ঐক্য নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। যাদের সঙ্গে ঐক্য করলে সন্ত্রাস বন্ধ করা সম্ভব তা হয়ে গেছে।

জঙ্গিবাদ এখন শুধু বাংলাদেশের সমস্যা নয়, এটি এখন বৈশ্বিক সমস্যা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনসচেতনতা বাড়ানোর কাজ চলছে। ধর্মীয় নেতা, শিক্ষক, অভিভাবকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সন্তানদের বিষয়ে অভিভাবকদের আরো সচেতন হতে হবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: