অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই রমযান, ১৪৪০ হিজরী

অস্ত্রের মুখে তুলে এনে বিয়ে: ডিআইজি মিজানকে প্রত্যাহার

Print

নিজস্ব প্রতিবেদক : বহুল সমালোচিত ডিআইজি মিজানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে বিয়ে করা ও মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেলে পাঠানোসহ একাধিক অভিযোগ প্রকাশের পর ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনারের (ডিআইজি) দায়িত্ব থেকে মিজানুর রহমানকে প্রত্যাহার (ওএসডি) করে পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া) সহেলী ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বিষয়টি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে পরবর্তী পদক্ষেপ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নেবে বলেও তিনি জানান।
ডিএমপির ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে এক নারী বলেন, পান্থপথের স্কয়ার হাসপাতালের কাছে তার বাসা। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে স্কয়ার হাসপাতালের সামনে থেকে কৌশলে তাকে তুলে নিয়ে যান পুলিশ কর্মকর্তা মিজান। এরপর রমনা থানার বেইলি রোডের মিজানের বাসায় নিয়ে তিনদিন তাকে আটকে রাখা হয়।
ওই নারী আরও দাবি করে বলেন, আটকে রাখার পর বগুড়া থেকে তার মাকে মিজানুর রহমানের বাসায় গত বছরের ১৭ জুলাই ডেকে আনা হয়। পরে সেখানে ৫০ লাখ টাকা কাবিননামায় মিজানকে বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়। পরে লালমাটিয়ার একটি ভাড়া বাড়িতে তাকে স্ত্রীর মর্যাদা দিয়ে রাখেন। কিন্তু ডিআইজি মিজানুর রহমান আগে থেকেই বিবাহিত ছিলেন। এ ঘটনার কয়েক মাস কোনো সমস্যা না হলেও ফেসবুকে মিজানুর রহমানের স্ত্রী পরিচয় দিয়ে একটি ছবি আপ করার পর ক্ষিপ্ত হন মিজান। এরপর মিথ্যা ভাঙচুরের একটি মামলা দিয়ে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে ২০১৭ সালের ১২ ডিসেম্বর কারাগারে পাঠানো হয়। সেই মামলায় জামিন পাওয়ার পর মিথ্যা কাবিননামা তৈরির অভিযোগে আরেকটি মামলা করানো হয়। ওই মামলাতেও জামিনে বেরিয়ে এসে মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন ওই নারী। তবে তিনি এসব অভিযোগ সংবাদ মাধ্যমের কাছে অস্বীকার করে বলেছেন, ওই নারী একজন প্রতারক।
এছাড়াও মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলের টিভি উপস্থাপিকার জীবন নিয়ে তছনছ করে তুলেছিলেন বলেও অভিযোগ উঠেছে। তাকে প্রত্যাহারের আগে নিজ ঘরে স্ত্রী রেখে জোর করে অস্ত্রের মুখে অন্য নারীকে বিয়ের অভিযোগ ওঠার পর আলোচনায় থাকা ঢাকার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মিজানুর রহমানকে গত সোমবার দেখা যায়নি পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে।
রাজারবাগের পুলিশ সপ্তাহ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রধানমন্ত্রী চলে যাওয়ার পর বেলা আড়াইটার দিকে মিজানুর রহমানকে সাংবাদিকরা সেল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি বলেন, “আমি রাজারবাগে আছি।”কোথায় আছেন-তা জানতে চাইলে তিনি ‘ব্যস্ত আছি’ বলেই তার সেল ফোনের লাইনটি কেটে দেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.