অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলহজ্জ, ১৪৪২ হিজরী

অ্যাস্ট্রাজেনেকার অনুমোদন ৬ মাস, ভারতে ৯ মাস

Print

অনলাইন ডেস্ক : উৎপাদনের তারিখ থেকে পরবর্তী ৬ মাসের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনেকা তাদের টিকা ব্যবহারের নির্দেশনা দিয়েছে। তবে ভারতের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই টিকা উৎপাদনের তারিখ থেকে ৯ মাস পর্যন্ত ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই খবর দিয়েছে।

 

অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা উৎপাদনের জন্য লাইসেন্স দেয়া হয়েছে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটকে (এসআইআই) এবং তারা এই টিকা কয়েক ডজন দেশে রপ্তানি করেছে। তাদেরকে দেয়া অনুমোদনের ফলে এই টিকা নষ্ট হওয়া সর্বনিম্ন পর্যায়ে নামিয়ে আনতে সহায়ক হবে স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্তৃপক্ষের জন্য। একই সঙ্গে টিকাদান কর্মসূচির পরিকল্পনা উন্নত হবে।

সেরাম উৎপাদিত এই টিকার নাম দেয়া হয়েছে কোভিশিল্ড। যদি এর মেয়াদ বাড়ানো না হয় তাহলে আগামী মাসের মধ্যভাগে দক্ষিণ আফ্রিকার দেশগুলোকে কমপক্ষে ১০ লাখ টিকার ডোজ ব্যবহার করতে হবে। এসআইআই-এর একটি অনুরোধের জবাব গত মাসে দিয়েছেন ভারতের ওষুধ কন্ট্রোলার-জেনারেল ভিজি সোমানি। লিখিতভাবে তিনি জানিয়েছেন, আপনাদেরকে হাতে থাকা ‘আনলেভেলড’ টিকার সংরক্ষণের মেয়াদ ৯ মাস অনুমোদন করা হলো। কিন্তু অ্যাস্ট্রাজেনেকা গত সপ্তাহে এক বিবৃতিতে বলেছে, তাদের এই টিকা ৬ মাস পর্যন্ত সংরক্ষণ, পরিবহন এবং সাধারণ রেফ্রিজারেটরে রাখা যাবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওয়েবসাইটে কোভিশিল্ডের মেয়াদ এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় উৎপাদিত অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার মেয়াদ ৬ মাস নির্ধারণ করে দিয়েছে।

 

তবে, এটি নিশ্চিত করা যায়নি যে, অব্যবহৃত টিকার ক্ষেত্রে ভিজি সোমানির সুপারিশ প্রযোজ্য হবে কিনা।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: