অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

আড়াই লাখ টাকায় বিক্রি হলো যে মাছ…..

Print

অনলাইন ডেস্ক : বরগুনার পাথরঘাটায় বিএফডিসি মৎস্য আড়তে আজ একটি দুষ্প্রাপ্য ভোল মাছ ২ লাখ ৪৭ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আজ শনিবার(১৪ নভেম্বর) সকালে পাথরঘাটা মৎস্য আড়তের আড়তদার ছগির হোসেনের আড়ত থেকে স্থানীয় পাইকার মাছ ব্যবসায়ী ইউসুফ মিয়া মাছটি কিনে নেন। মাছটির ওজন ছিল ২২ কেজি।

এই মাছ আহরণের ঘটনাটির সত্যতা যাচাই করে পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য আড়তদার সমিতির সদস্য সগির হোসেন বলেন, সুন্দরবন এলাকার জেলে সুকুমার বহাদ্দার আজ সকালে আমাদের আড়তে এই মাছটি বিক্রির জন্য নিয়ে আসেন। সচরাচর ভোল মাছ আমাদের আড়তে উঠে না। সে কারণেই তিনি মাছটির প্রাথমিক দাম হেঁকেছিলেন সাড়ে ৪ লাখ টাকা। পরে দামাদামি করার পর পাইকার ইউসুফ মিয়া মাছটি ২ লাখ ৪৭ হাজার ৫০০ টাকায় কিনে নেন। সে হিসেবে মাছটির কেজিপ্রতি দাম পড়েছে ১১ হাজার ২৫০ টাকা।

প্রায় আড়াই লাখ টাকা দিয়ে মাছটি কেন কিনেছেন এর উত্তরে পাইকার ইউসুফ মিয়া জানান, আন্তর্জাতিক বাজারে ভোল মাছের অনেক চাহিদা রয়েছে। সে কারণেই এতদাম দিয়ে মাছটি কিনেছেন তিনি।

পাথরঘাটা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা জয়ন্ত কুমার বলেন, মাছটি বিদেশে রপ্তানি হয়। বরিশাল জেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস বলেন, আমাদের অঞ্চলে পাওয়া যায় এর মধ্যে ৩টি মাছের বায়ুথলি অনেক দামি। মাছ ৩টি হচ্ছে কোরাল, ভোল এবং মেদ মাছ। এই মাছগুলো মূলত গভীর সাগরের মাছ। আমাদের অঞ্চলে এ মাছগুলো কম ধরা পড়ে। ভোল মাছ খুবই সুস্বাদু হয় এবং এই মাছ বিদেশের বিভিন্ন নামিদামি হোটেলে স্যুপ রান্নায় ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও দামি ওষুধ তৈরিতে এই মাছের অংশ ব্যবহার করা হয়।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: