অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

এবার ধর্ষণের প্রতিবাদ করলেন প্রিয়াঙ্কা

Print

বিনোদন ডেস্ক : ভারতের উত্তর প্রদেশের হাথরসে এক তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় প্রতিবাদে ফেটে পড়েছে পুরো ভারত। এ ঘটনার নৃশংসতা বর্বরতার সীমা অতিক্রম করেছে এবং এ ঘটনায় ভারতীয় পুলিশেরও তুমুল সমালোচনা হচ্ছে। গণধর্ষণের পর ওই তরুণীর উপর পাশবিক নির্যাতন চালায় ধর্ষণকারীরা। হাসপাতালে ১৫ দিন লড়াই করার পর গত মঙ্গলবার মৃত্যু হয় সেই তরুণীর। কিন্তু পরিবারের অনুমতি ছাড়াই উত্তর প্রদেশ পুলিশ ওই তরুণীর লাশ দাহ করে দেয়। সে ঘটনার জের ধরেই এবার মুখ খুলেছেন বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপরা।

এক ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে প্রিয়াঙ্কা লেখেন, “অসম্মান, অবমাননা, হেনস্থা, নৈরাশা, দুঃখ, অসহায়ত্ব এই আবেগগুলোই মাথায় ঘুরছে। ওদের সঙ্গে যা হল অমানবিক এবং বর্বরতার সীমা ছাড়ালো। কেন? বার বার। নারী, বাচ্চা মেয়েরা অনবরত ধর্ষণের শিকার হয়ে চলেছে। আমরা কাঁদি। ওরা কাঁদে। কিন্তু তাও কেউ আমাদের কান্নার শব্দ শুনতে পায় না। এত ঘৃণা কেন? আইন কি এত কান্নার চিৎকার শুনেও মুখ বন্ধ করে রয়েছে? আর কত জন নির্ভয়াকে এমন সহ্য করতে হবে?আর কত বছর ধরে?

এই স্টোরি দেয়ার পরপরই তা সোশাল মিডিয়ায় সাথে সাথে ভাইরাল হয়ে যায়। জাতিসংঘের চিলড্রেন ফান্ডের সঙ্গে বহু বছর ধরে কাজ করছেন প্রিয়াঙ্কা। ২০১৬ তে তিনি গ্লোবাল ইউনিসেফ গুডউইল অ্যাম্বাসাডর হন। তাই এর আগেও নারী অধিকার ও অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। নারী উদ্যোগপতিদের উৎসাহ জাগিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৪ সেপ্টেম্বর ওই দলিত তরুণী তার মায়ের সঙ্গে মাঠে গিয়েছিলেন। তখনই তাকে অপহরণ করে গণধর্ষণ করা হয়। এরপর তাকে শ্বাসরোধ করে খুনের চেষ্টা করা হয় বলে জানা গেছে। পাশবিক ধর্ষকরা ওই তরুণীর জিভ কেটে দেন। তার ক্ষত এতটাই গভীর ছিল যে তার হাত পা নিস্তেজ হয়ে যায়। সেখান থেকে উদ্ধার করে প্রথমে তাকে জওহরলাল নেহেরু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়। কিন্তু সোমবার অবস্থার অবনতি হলে তাকে দিল্লির সফদর জং হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সেখানেই মঙ্গলবার তার মৃত্যু হয়। অসুস্থ অবস্থাতেও ধর্ষকদের নাম জানিয়ে গেছেন তরুণী।

সূত্র : কলকাতা টোয়েন্টিফোর।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: