অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী

এবার প্লেবয় মডেলের সঙ্গে ট্রাম্পের কেলেঙ্কারি ফাঁস

Print

অনলাইন ডেস্ক : বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। একের পর এক বিতর্কে জড়িয়ে পড়ছেন তিনি। এবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন সাবেক এক প্লেবয় মডেল। তার নাম কারেন ম্যাকডাউগল।
তিনি অভিযোগ করেন, তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাবেক প্রেমিকা। তার সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্ক থাকার কথাও জানান ম্যাকডাউগল। ম্যাকডাউগলের ভাষ্য, ২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। তাদের মধ্যে যৌন সম্পর্কও হয়েছিল। ট্রাম্প তাকে তার জীবনে ‘বিশেষ’ নারী বলেছিলেন। এর ঠিক এক মাস আগে বর্তমান মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলেনিয়া ট্রাম্প ডোনাল্ড ট্রাম্পের সর্বশেষ সন্তানের জন্ম দেন।
এই খবর ফাঁস হওয়ার পর মেলানিয়া ট্রাম্প প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন এবং নিজের হাত থেকে ট্রাম্পের হাত সরিয়ে দিয়েছেন বলে খবর এসেছে গণমাধ্যমে। নিউ ইয়র্কার সাময়িকীকে ম্যাকডাউগল বলেন, ২০০৬ সালে প্লেবয় ম্যানশনে প্লেবয় কর্ণধার (বর্তমানে প্রয়াত) হিউ হফনারের একটি পার্টিতে তার সঙ্গে দেখা হয় ট্রাম্পের। তখন তার প্রতি আসক্তি দেখে তাকে ট্রাম্পের ‘পরবর্তী স্ত্রী’ আখ্যায়িত করেছিলেন প্লেবয়ের একজন বিপণন কর্মকর্তা। প্লেবয় ম্যানশনে সাক্ষাতের পর ট্রাম্পের ব্যক্তিগত বাংলো বেভারলি হিলসে নিয়মিত মিলিত হওয়ার দাবি করেন ম্যাকডাউগল।
তিনি তার ডায়েরিতে লিখেছেন, ‘ট্রাম্প আমাকে অর্থ দিতে চেয়েছিল। সেকথা শুনে আমি তখন আহত হয়েছিলাম। আমি বলেছিলাম, আমি সেই রকম মেয়ে নই। আমি অর্থের জন্য তোমার সঙ্গে শুইনি। আমি তোমাকে পছন্দ করেছি বলে তোমার সঙ্গে শুয়েছি। তখন ট্রাম্প বলেন, তুমি ‘স্পেশাল ওয়ান’। ২০০৭ সালে ট্রাম্পের মুখে এক বর্ণবাদী মন্তব্য শুনে তার প্রতি আগ্রহ হারান ম্যাকডাউগল। ওই বছরের এপ্রিলে তাদের সম্পর্কচ্ছেদ ঘটে। ম্যাকডাউগাল বলেন, এই সম্পর্কের কথা প্রকাশ নিয়ে বেশ নার্ভাস ছিলেন তিনি, তবে স্টরমি ড্যানিয়েল মুখ খোলার পর উৎসাহিত হন তিনি। ম্যাকডাউগাল বলেন, তার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্ক চলার মধ্যে তিন মাসের ব্যারনকে নিয়ে নিউইয়র্কে ফিরেছিলেন মেলানিয়া, যিনি ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী।
নিউ ইয়র্কারে যখন খবরটি ছাপা হয়, তখন মেলানিয়া ও ট্রাম্প ফ্লোরিডায়; স্কুলে এক তরুণের গুলিতে হতাহত পরিবারগুলোকে সান্ত¡না জানাতে গিয়েছিলেন।
সিএনএন’র এর এক ভিডিওতে দেখা যায়, বিমান থেকে নামার সময় ট্রাম্পের হাত ঝটকায় সরিয়ে দিচ্ছেন মেলানিয়া।
মেলানিয়ার এই শীতল প্রতিক্রিয়া নিউ ইয়র্কারে খবরটি দেখে বলে মনে করা হচ্ছে। এদিকে হোয়াইট হাউস বলেছে, ট্রাম্পের সঙ্গে কখনও ম্যাকডোগালের কোনো সম্পর্ক ছিল না। এটা সেই পুরনো গল্প, একটা ভুয়া খবর ছাড়া কিছুই নয়।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: