অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

ওয়াদা করুন, নৌকায় ভোট দেবেন : প্রধানমন্ত্রী

Print

নিজস্ব প্রতিবেদক : জনসভায় আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তাদের শপথ করিয়ে তিনি বলেন, আমরা চাই বিশ্ব দরবারে বাঙালি মাথা উঁচু করে এগিয়ে যাবে। সেই লক্ষ্য পূরণের জন্য আগামী ডিসেম্বরের নির্বাচনে আপনাদের কাছে আমরা নৌকা মার্কায় ভোট চাই। নৌকা স্বাধীনতা এনে দিয়েছে, সমৃদ্ধির পথ দেখিয়েছে, উন্নতির পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। আপনারা ওয়াদা করেন, হাত তুলে ওয়াদা করেন যে আপনারা নৌকায় ভোট দেবেন। সিলেটের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এই জনসভার মধ্য দিয়ে শুরু হলো আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা।
সন্ত্রাস, দুর্নীতি, জঙ্গিবাদের কোনো স্থান বাংলার মাটিতে নেই মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, শান্তি থাকলেই দেশের উন্নতি হবে। জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদকে কোনোভাবেই স্থান দেওয়া যাবে না। বাবা-মাকে আরও বেশি সচেতন হতে হবে। সন্তান কোথায় যায়, কার সঙ্গে মেশে সেসব দিকে খেয়াল রাখতে হবে। ছেলেমেয়েরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিত কিনা সেটা দেখতে হবে। দেখবেন তারা মাদকাসক্তিতে জড়িয়ে পড়ছে কিনা। ইমামদের আহ্বান জানাবো, আপনারা সবাইকে সচেতন করুন। বোঝান যে, জঙ্গিবাদের কথা কখনও ইসলাম বলেনি। ইসলাম সবসময় শান্তির কথা বলে। আওয়ামী লীগ সরকারের সময়কার নানা উন্নয়ন কার্যক্রমের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসলে দেশ পুরস্কৃত হয়, বিএনপি-জামায়াত লুটেরা, খুনি ও অগ্নিসন্ত্রাসীদের দল, তারা জানে শুধু ধ্বংস করতে। তারা ক্ষমতায় আসলে দেশ তিরস্কৃত হয়, দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়। বিএনপি আমলে দেশে জঙ্গিবাদ সৃষ্টি হয়, বাংলা ভাই সৃষ্টি হয়। একইসঙ্গে সারাদেশে বোমা হামলা হয়। অনেকের জীবন জীবিকার পথ বন্ধ হয়ে যায়। সিলেটবাসীর জন্য অনেক উপহার নিয়ে এসেছেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চা না হলে আমাদের কারোরই সকালবেলা চলে না। তাই চা শ্রমিকদের জন্য নানান সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছি। চা যেন সিলেট থেকেই নিলাম করা যায় সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলবো বলেছিলাম, গড়ে তুলেছি। এখানকার অনেক বাসিন্দা প্রবাসী। প্রবাসীরা দেশে রেমিটেন্স পাঠায়। দেশের বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন হয়। তাদের আরও বেশি সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার চেষ্টা করছি। তাদের জন্য আলাদা ব্যাংক করার কথা চলছে। আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, আমরা ভিক্ষা করে চলতে চাই না। আমরা কারও কাছে হাত পাততে চাই না। মাথা উঁচু করে বিশ্ব দরবারে চলতে চাই। আওয়ামী লীগের চিন্তা চেতনা আর ওদের চিন্তা চেতনায় তফাতটা আপনারাই বুঝতে পারেন। যারা এতিমের টাকা মেরে খায়, যারা জনগণকে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারে, যারা দেশকে ধ্বংস করতে জানে, দেশকে পাঁচবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন করে- তারা কীভাবে একটা দেশের উন্নয়ন করবে? এদিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটে ৩৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন করেন। এর মধ্যে ১৪টি উন্নয়ন প্রকল্প এবং ২৪ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
প্রধানমন্ত্রীর দিনব্যাপী সফরে সকালে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছে প্রথমে হযরত শাহ্ জালাল (র.)-এর দরগায় যান এবং সেখানে মাজার জিয়ারত করেন। এরপর তিনি সিলেট নগরীতে হযরত শাহ্ পরান (র.) এবং হজরত গাজী বোরহান উদ্দিন (র.)-এর মাজার জিয়ারত করেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.