অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী

গুলশান হামলার আরেক মাস্টারমাইন্ড মারজান

Print

দৈনিক চিত্র রিপোর্ট: গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্টেুরেন্টে হামলার আরেক পরিকল্পনাকারীকে শনাক্ত করেছে পুলিশ। তার নাম মারজান (সাংগঠনিক নাম)। সে বাংলাদেশের নাগরিক। গত ১লা জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলার সময় সে বাহির থেকে হত্যাকাÐে অংশগ্রহণকারী জঙ্গিদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেয়। তাকে গ্রেপ্তার করা গেলে এ হত্যাকাÐের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, গুলশানের ঘটনার পর কল্যাণপুর ছাড়াও বিভিন্ন স্থানের অন্তত দশটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেছে পুলিশ। গুলশানে হামলার সময় জঙ্গিরা ভেতর থেকে বাইরে যে ছবি ও মেসেজ পাঠিয়েছিল, আরেকজন শীর্ষ পর্যায়ের একজন সন্ত্রাসী, সংগঠক, একজন মাস্টারমাইন্ড (মারজান)। তার সঙ্গে যোগাযোগ করেই তারা ছবি পাঠিয়েছে। অবশ্য সরাসরি ছবি পাঠানো হয়নি। ছবি পাঠানো হয় একটি আইডিতে। আর অন্যান্য যে কমিউনিকেশন, যেগুলো আমরা পেয়েছি, সেগুলো তার (মারজানের) সঙ্গে ছিল বলে জানান তিনি।
মনিরুল ইসলাম বলেন, হলি আর্টিজানের ভেতর থেকে আসা ছবিগুলো মারজান ছড়িয়ে দেয় বলে পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে। জঙ্গিরা ছবিগুলো মারজানের কাছে একটি ই-মেইলে পাঠিয়েছে। হামলা সংক্রান্ত সব ছবি মারজানের আইডি থেকেই বাইরে পাঠানো হয়। সে ঢাকায় অবস্থান করছে। সে শিক্ষিত বলে মনে হয়েছে। তার একটি ছবি গোয়েন্দা সদস্যদের হাতে রয়েছে। ওই ছবির সূত্র ধরে তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে। মারজানকে গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, হামলাকারী পাঁচজন হেঁটে হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে ঢুকে। যাওয়ার সময় আরেক পরিকল্পনাকারী জঙ্গিদের অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছিল। পরে সে ঘটনাস্থল থেকে সরে যায়। তবে হলি আর্টিজানে হামলা ও হত্যার সব ছবি মারজানের আইডি থেকেই বাইরে পাঠানো হয়। জঙ্গি হামলার ঘটনা তদন্তে মারজানের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে বলে জানান মনিরুল ইসলাম।
ডিএমপি নিউজ পোর্টালেও হাস্যোজ্জ্বল অবস্থায় থাকা মারজানের ছবি প্রকাশ করা হয়েছে। পরনে হালকা নীল টি-শার্ট। মারজানের মাথায় ঘন চুল, মুখে খোঁচা খোঁচা দাড়ি ও গোঁফ রয়েছে। নিউজ পোর্টালে মারজান সম্পর্কে বলা হয়, গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে হামলাকালীন সন্ত্রাসীরা এই ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার সাংগঠনিক নাম ‘মারজান’। তিনি অত্র ঘটনার সন্দেহভাজন। তার পরিচয় সম্পর্কে জানা থাকলে ‘হ্যালো সিটি’ অ্যাপস এর মাধ্যমে অবহিত করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: