অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

গ্রেপ্তার এড়াতে গুলশান কার্যালয়ে রিজভী আহমেদ

Print

দৈনিক চিত্র রিপোর্ট: গ্রেপ্তার এড়াতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবস্থান করছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ। শুক্রবার সকাল থেকেই বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে অবস্থান করছেন তিনি। রাজধানীর পল্লবী থানায় দায়েরকৃত একটি নাশকতার মামলায় ২৫শে জুলাই রিজভী আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন নবী খান সোহেল, চেয়ারপারসনের ব্যক্তিগত সহকারী শিমুল বিশ্বাস, প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান, সাবেক এমপি সৈয়দা আসিফা আশরাফী পাপিয়া, আজিজুল বারী হেলালসহ নয়জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। সেদিন দলের নয়াপল্টনে অবস্থান করছিলেন তিনি। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির খবর পেয়ে নয়াপল্টন থেকে বেরিয়ে গেলেও জাতীয় প্রেস ক্লাবে একটি আলোচনা সভায় অংশ নেন রিজভী আহমেদ। এরপর অনেকটা প্রকাশ্যেই ছিলেন তিনি। বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের কর্মকর্তা গাফফার জানান, গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পরদিনও নয়াপল্টনে এসেছিলেন রিজভী আহমেদ। কিন্তু বাইরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হলে তিনি এক ফাঁকে বেরিয়ে যান। এরপর আর নয়াপল্টন অফিসে যাননি। এদিকে তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির মিছিলে পুলিশি হামলার প্রতিবাদ জানাতে শুক্রবার সকালে বিএনপি চেয়ারপারসন কার্যালয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন করেন তিনি। এ সময় চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের বাইরে হঠাৎ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন ও গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়। এতে কার্যালয় থেকে বের হলে রিজভী আহমেদকে গ্রেপ্তার করা হতে পারেÑ নেতাদের মধ্যে এমন একটি আশঙ্কা তৈরি হয়। এরপর থেকে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে অবস্থান করছেন তিনি। এমনকি রিজভী আহমেদ যে ফোনটি ব্যবহার করেন, সেটিও এখন বন্ধ। তবে গতরাতে অন্য এক নেতার মোবাইলে রিজভী আহমেদ বলেন, এ অনির্বাচিত সরকার কথাও বলতে দিচ্ছে না। এখন কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি নেই। তারপরও প্রতিনিয়ত হয়রানি করা হচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকেই চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয় ঘিরে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন অবস্থান নিয়েছে। ফলে কার্যালয় থেকে বের হতে পারছি না। তার সঙ্গে থাকা বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য বেলাল আহমেদ জানান, শুক্রবার সকাল থেকে কার্যালয়ের সামনে সাদাপোশাকে পুলিশ অবস্থান করছে। শুক্রবার সারা রাত পোশাকধারী পুলিশ ছিল কার্যালয়ের বাইরে। ডিবি পুলিশের একটি গাড়িও রাখা হয়েছে কার্যালয়ের গেটের সামনে। এমন পরিস্থিতিতে অবরুদ্ধ হয়ে আছেন রিজভী আহমেদ। তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হওয়ায় তিনি বের হলে গ্রেপ্তার হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং কর্মকর্তা শামসুদ্দিন দিদার জানান, শুক্রবার সকাল থেকে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আছেন রিজভী আহমেদ। কার্যালয়ের বাইরে গোয়েন্দা ও পুলিশি তৎপরতার কারণে তিনি বের হলে গ্রেপ্তার করা হতে পারে এমন একটি আশঙ্কা রয়েছে। ফলে কার্যালয় ও আশপাশের পরিস্থিতি বেশ থমথমে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: