অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী

ট্রাম্পের অর্থনৈতিক নীতি ‘বিপর্যয়কর’ হতে পারে

Print

অনলাইন ডেস্ক: ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে তার অর্থনৈতিক নীতি ‘বিপর্যয়কর’ হতে পারে। আর সে কারণেই হিলারি ক্লিনটনকে ভোট দিবেন বলে জানিয়েছেন জর্জ ডবিøউ বুশের সরকারের বাণিজ্য মন্ত্রী কার্লোস গুতিয়েরেজ। তিনি বলেছেন, হিলারি ও ট্রাম্পÑ উভয়েরই ‘সার্বিক দিক’ বিবেচনা করে দেখেছেন তিনি। আর তারপরই রিপাবলিকান হলেও তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তার ভোট পড়বে হিলারির পক্ষেই। এ খবর দিয়েছে সিএনএন। খবরে বলা হয়, কার্লোস গুতিয়েরেজ ট্রাম্পের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে ‘শঙ্কিত’ বোধ করবেন। আর ‘অভিজ্ঞতা’র কারণেই হিলারি ‘দারুণ একজন প্রেসিডেন্ট’ হবেন বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। কার্লোস বলেন, ‘আমার কাছে হিলারির বিবরণ রয়েছে, আমার কাছে ট্রাম্পের বিবরণও রয়েছে। আর এ দুই থেকে আমি হিলারিকেই বেছে নিয়েছি। আমার মনে হয়, হিলারিই দেশের জন্য সবচেয়ে ভালো হবেন। আমি রিপাবলিকান হিসেবে নয়, একজন আমেরিকান হিসেবে চিন্তা করেছি। আমার মনে হয়, কোনো কোনো ক্ষেত্রে দলীয় পরিচয়ের বাইরে এসে দেশের জন্য কোন্টা সবচেয়ে ভালো, সেটা বলা উচিত। ডোনাল্ড ট্রাম্প তৈরি করবেন, এমন কোনো সমাজে আমি বাঁচতে চাই না।’ আমেরিকার মুক্ত বাণিজ্য নীতির অন্যতম প্রবক্তা ছিলেন কার্লোস গুতিয়েরেজ। ডোনাল্ড ট্রাম্প তার নির্বাচনী প্রচারণায় বরাবরই এই নীতির বিরোধিতা করে এসেছেন। ট্রাম্পের অর্থনৈতিক নীতিকে তাই ক্ষতিকর মনে করেন কার্লোস। তিনি বলেন, ‘অর্থনীতি আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আয়কর কর্তনে তার পরিকল্পনা আমার ভালো লেগেছে। আমি রিপাবলিকান। কিন্তু তিনি আমদানি প্রতিস্থাপনের কৌশলের মতো পরিকল্পনা নিয়েছেন। অনুন্নত, অত্যন্ত দরিদ্র দেশগুলো এমন কৌশল গ্রহণ করে থাকে। এই আমদানি বন্ধ করে দেয়ার মতো এমন অর্থনৈতিক কৌশল বিপর্যয়কর হবে।’ হিলারি তার স্বামীর প্রেসিডেন্ট থাকার মেয়াদ থেকে শিক্ষা নিয়ে থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন কার্লোস। আর ট্রাম্পের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট কোনো অর্থনৈতিক পরিকল্পনাও পাওয়া যায়নি বলে মন্তব্য করেন তিনি। কার্লোস বলেন, ‘সংরক্ষণবাদ আর কম আয়কর ছাড়া ট্রাম্পের মুখ থেকে অর্থনৈতিক পরিকল্পনার কোনো কথা বের হতে শুনিনি। আর এই দুইটি একত্রিত হলে তা হবে বিপর্যয়ের একটি রেসিপি।’




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: