অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

ঢাকায় ১২৮ কিলোমিটার জুড়ে মেট্রোরেল!

Print

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা মহানগর ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকার যানজট নিরসনে এবং দ্রুতগতিতে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে চলাচলের স্বার্থে ২০৩০ সালের মধ্যে আরো ৬টি মেট্রোরেল প্রকল্পের পরিকল্পনা করছে সরকার। এরই মধ্যে ওই প্রকল্পের আওতায় ১২৮ কিলোমিটার রুট নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এই রুটের ৬১ কিলোমিটার মাটির নিচ দিয়ে এবং বাকি ৬৭ কিলোমিটার হবে উড়াল পথে।

বুধবার(২৩ সেপ্টেম্বর) এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মেট্রোরেল প্রকল্পের উদ্যোগে নির্মিত ফিল্ড হাসপাতাল উদ্বোধনআক্লে এসব কথা জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত উত্তরা ও গাবতলী ইয়ার্ডে নির্মিত হাসপাতাল দুইটির তত্ত্বাবধায়করা বলেন, করোনাকালীন সময়ে চলমান প্রকল্পগুলোর কাজে ধীরগতির প্রভাব দেখা দিয়েছিল। কিন্তু এখন আর সেই সমস্যা নেই। হাসপাতাল দুটিতে আধুনিক ও মানসম্মত চিকিৎসাসেবা প্রদানে প্রয়োজনীয় সব ধরণের ব্যবস্থা এরইমধ্যে নেয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনাভাইরাস মানুষের জীবন, অর্থনীতি সব কিছু যেমন ওলটপালট করে দিয়েছে, তেমনি মেট্রোরেল প্রকল্পেরও অনেক ক্ষতি হয়েছে। নিত্য নতুন সংকটের নিত্য নতুন সমাধানের পথ খোঁজা হয় এ প্রকল্পে। আর মহামারির কারণে মেট্রোরেল প্রকল্পের সাথে জড়িত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শারীরিক সুস্থতার কথা বিবেচনা করে এই হাসপাতাল নির্মাণসহ নানা পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

মেট্রোরেল প্রকল্পে মূলত জাপান ও থাইল্যান্ডের প্রকৌশলী ও পরামর্শকরা কাজ করছেন বেশি, এমন কথা উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের কারো করোনা ধরা পড়লে বা উপসর্গ থাকলে তাদের প্রকল্প এলাকায় একটি নির্দিষ্ট স্থানে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে। পাশাপাশি করোনার কারণে প্রকল্পে জড়িত কর্মীদের প্রকল্প এলাকায় বসবাসের ব্যবস্থা করে দেয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, হাসপাতাল দুটি মূলত নির্মাণ করা হয়েছে মেট্রোরেল প্রকল্পের কর্মীদের জন্য। করোনার প্রকোপ দেশে আরো বাড়তে পারে সে আশঙ্কা করেই দুইটি ফিল্ড হাসপাতাল নির্মাণে অনুমতি দেয়া হয়েছে। একটি হাসপাতাল উত্তরার পঞ্চবটী কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে ১৪ শয্যাবিশিষ্ট এবং অপর হাসপাতালটি গাবতলীর কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে ১০ শয্যার। এই দুইটি হাসপাতালে আইসিইউ-এর ব্যবস্থাও করা আছে। দেশের কোনো প্রকল্পের জন্য ফিল্ড হাসপাতাল নির্মাণ দেশে এই প্রথম।

ওবায়দুল কাদের মনে করেন, এই হাসপাতাল দুটির কারণে মেট্রোরেল প্রকল্পের কর্মীরা চিকিৎসাসেবা নিয়ে আশ্বস্ত হবেন। এতে করে প্রকল্পে যারা কাজ করছেন তাদের মনোবল বৃদ্ধি পাবে এবং একইসাথে কাজের গতিও বৃদ্ধি পাবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: