অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

দ্বিতীয় ম্যাচেও পারলো না ব্রাজিল

Print

স্পোর্টস ডেস্ক: রিও-অলিম্পিক্সের গ্রæপপর্ব থেকেই বিদায়ের শঙ্কায় ব্রাজিল ফুটবল দল। গ্রæপপর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচেও জিততে পারলো না স্বাগতিকরা। প্রথম ম্যাচে তাদের গোলশূন্য রুখে দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা। আর গতকাল দ্বিতীয় ম্যাচে তাদের রুখে দিল যুদ্ধবিধ্বস্ত ‘পুচকে’ ইরাক। ১৯৭২ সালের পর এই প্রথম অলিম্পিকে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে গোল করতে ব্যর্থ হলো ব্রাজিল। গ্রæপপর্বের শেষ ম্যাচে বৃহস্পতিবার তারা খেলবে ডেনমার্কের বিপক্ষে। ওই ম্যাচ জিততে না পারলে কঠিন সমীকরণের সামনে পড়বে তাদের পরের রাউন্ডে ওঠা। শেষ ম্যাচে ব্রাজিল হার কিংবা ড্র দেখলে আর ইরাক দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারালে শেষ আটে ডেনমার্কের সঙ্গী হবে ইরাক। পাঁচবার ফিফা বিশ্বকাপ জিতেছে ব্রাজিল। তিনবার জিতেছে ফিফা কনফেডারেশন্স কাপের শিরোপা। কিন্তু এখন পর্যন্ত ফুটবলে অলিম্পিকের স্বর্ণ জিততে পারেনি তারা। গতবার ফাইনালে উঠলেও তাদের হতাশ করে মেক্সিকো। তবে এবার নিজেদের মাটিতে অলিম্পিক বলে স্বর্ণ-খরা কাটানোর স্বপ্ন দেখছিল তারা। কিন্তু চেনা মাঠে নিজেদের দর্শকদের সামনে তারা যে খেলা দেখাচ্ছে তাতে হতাশ না হয়ে উপায় নেই। মাঠে উপস্থিত হাজার ব্রাজিলের সমর্থক এদিন নিজেদের দলের খেলোয়াড়দেরই দুয়ো দেয়। ম্যাচের শেষের দিকে সেটা বড় আকার ধারণ করে। গত মৌসুমে স্প্যানিশ লা-লিগায় বার্সেলোনার হয়ে ২৪ গোল করেন নেইমার। ব্রাজিলের অলিম্পিক দলের অধিনায়ক তিনি। কিন্তু দুই ম্যাচে এখন পর্যন্ত গোল করতে পারেননি তিনি। উল্টো ইরাকের বিপক্ষে এদিন ম্যাচের প্রথমার্ধে গোল হজম করতে বসেছিল ব্রাজিল। প্রথমার্ধের ২১ মিনিটে ইরাকের এক খেলোয়াড়ের নেয়া দারুণ একটি শট ব্রাজিলের গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়েছিল। কিন্তু বলটি ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। অবশ্য ব্রাজিল এদিন অনেকবার গোলের সুযোগ পায়। ইরাকের গোলমুখে তাদের খেলোয়াড়রা ২০ বার শট নেয়। এরমধ্যে ৬ বার ছিল অনটার্গেটে। কিন্তু কাক্সিক্ষত সেই গোল তাদের ধরা দেয়নি। দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে প্রথম ম্যাচ ড্র করার পর অধিনায়ক নেইমার বলেছিলেন, ‘এই ড্র হারের সমান’। এবার যুদ্ধ-বিধ্বস্ত ‘পুচকে’ ইরাকের কাছে হেরে তিনি কী বলবেন? ম্যাচের পর নেইমারের কোনো মন্তব্য পাওয়া গেল না। তবে কোচ রোজারিও মিচেল সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইলেন। বলেন, ‘আজ দর্শকরা বিপুল সমর্থন নিয়ে হাজির হয়েছিল। তারা আমাদের কাছে একটা প্রত্যাশা করেছিল। কিন্তু সে প্রত্যাশা আমরা মেটাতে পারিনি। ইরাকের বিপক্ষে নিজেদের খেলাটা আমরা খেলতে পারিনি। সমর্থকদের প্রত্যাশা মিটাতে না পারায় আমি ক্ষমা চাইছি।’




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: