অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

নেপাল-মালয়েশিয়া গোলশূন্য ড্র

Print

যশোর থেকে সংবাদদাতা: বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে মালয়েশিয়া ও নেপাল কেউই গোলের দেখা পায়নি। তাই গোলশূন্য ড্র মেনে এক পয়েন্ট নিয়ে ঢাকার পথে যাচ্ছে দল দুইটি।

শনিবার যশোর শামস উল হুদা স্টেডিয়ামে আক্রমণ পাল্টা আক্রমণের মধ্যেদিয়ে দুই দল গ্রুপ পর্বের এ ম্যাচে লড়াই করে। আর পরাজয় এড়িয়ে এক পয়েন্ট নিয়ে যাত্রা শুরু করায় সন্তুষ্ট দুই দলেরই কোচ।

টুর্নামেন্টে গতবারের চ্যাম্পিয়ন দল মালয়েশিয়া। কিন্তু এবার সে দলটি আসেনি, মালয়েশিয়া একাদশ নামে যে দলটি খেলছে, তা আসলে ক্লাব দল। আর এসএস গেমসের প্রস্তুতি হিসেবে নেপালের মোড়কে এসেছে তাদের অনূর্ধ্ব-২৩ দল। তাই পরস্পরের অচেনা দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে হোঁচট না খাওয়ায় সন্তুষ্ট তারা। এর আগে শুক্রবার এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশ ৪-২ গোলে পরাজিত করে শ্রীলঙ্কা দলকে।

নেপাল-মালয়েশিয়া ম্যাচ শুরুতেই আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে উঠে ম্যাচ। তবে শুরুতেই দুই দলের আক্রমণ ভাগের খেলোয়াড়রা তাদের শট জমা দিতে থাকেন প্রতিপক্ষের গোলরক্ষকের হাতে। ম্যাচের ১৯ মিনিটে ভাল একটি সুযোগ পায় মালয়েশিয়া। মধ্যমাঠ থেকে আসা বল ডান প্রান্ত হয়ে উড়ে যায় গোলমুখে। কিন্তু ববি গঞ্জালেস হেড জালের লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেনি। ম্যাচের ৪০ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায় নেপাল। তাদের বিমল ঘাত্রি দূর থেকে জোরালো শট নিয়েছিলেন। কিন্তু তা প্রতিহত করেন মালয় গোলরক্ষক ফারিজাল হারুন। অগত্যা গোল শূন্যভাবেই বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে এসে সহজ সুযোগটি মিস করে নেপাল। দ্বিতীয়ার্ধের ১০ মিনিটে বল নিয়ে মালয়েশিয়ার অর্ধে ঢুকে পড়েন নেপালের বিমল ও রবিন। আর তাদের আটকাতে ডি বক্সের বাইরে এগিয়ে যান মালয়েশিয়ার গোলরক্ষক ফারিজাল হারুন। গোলরক্ষকের সামনে থেকে বিমল বল ঠেলে দেন রবিনকে। কিন্তু ফাঁকা নেটে বল জড়াতে পারেননি রবিন।

ম্যাচের ৬৩ মিনিটে আরেকটি আক্রমণ ছিল নেপালের। এবার দূরপাল্লার শটটি বারে লেগে বেরিয়ে যায়। ম্যাচের বাকিটা সময়ও আর কোনো দল গোল না পাওয়ায় ড্র মেনেই মাঠ ছাড়েন তারা। তবে ম্যাচের প্রথমার্ধে মালয়েশিয়া কিছুটা ভাল খেললেও দ্বিতীয়ার্ধের শেষ দিকে নেপাল পারফরমেন্সে কিছুটা এগিয়ে ছিল।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে নেপাল দলের কোচ বালগোপাল মহারাজ জানান, খেলোয়াড়দের প্রতি তিনি সন্তুষ্ট। মালয়েশিয়ার মতো দেশের সঙ্গে ড্র করেছেন। এটিও ভাল অর্জন।

আর মালয়েশিয়ার কোচ এরফান বাগতি জানান, নেপালও শক্তিশালী দল। তারা ভাল খেলেছে। আর আমাদের ছেলেরাও জয়ের জন্য খেলেছে। তবে জয় না পেলেও এক পয়েন্ট নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট। এরপর পরবর্তী রাউন্ডে ওঠার লক্ষ্য নিয়েই তারা মাঠে নামবেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: