অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই রমযান, ১৪৪০ হিজরী

পাংশায় কলিমহর জহুরুন্নেছা কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটউটে ভাংচুর

Print

ষ্টাফ রিপোর্টার  : একের পর এক নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে রাজবাড়ী জেলার পাংশার একদল দুর্বত্ত। এরা এবার ভাংচুর করেছে জেলার ঐতিহ্যবাহী কলিমহর জহুরুন্নেচ্ছা কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটউটের আসবাবপত্র। এ ঘটনার বাধা দিতে গিয়ে ওই কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটউটের ১৫ জন ছাত্র আহত হয়েছে।তারা ছাত্রদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে ৭৮হাজার ৫শ টাকা ও মোবাইল। গত ৩১ ডিসেম্বর এ ঘটনা ঘটলেও রহস্যজনক কারনে পুলিশ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতার করছে না। তাছাড়া ছিনিয়ে নেওয়া অর্থও উদ্ধার করতে পারেনি।
ইনিস্টিটউটের ছাত্র সুমন হোসেন জানান,৩১ ডিসেম্বর রাত আনুমানিক ১০টায় স্থানীয় আঃ রাজ্জাকের নেতৃত্বে ২০-২৫জন দুর্বত্ত চাপাত,রড,লাঠি ও চাকু হাতে কলেজ ক্যাম্পাসে ঠুকে শোরগোল শুরু করে। আমরা শোরগোলের শব্দ শুনে বাইরে এলে তারা আবাসিক ছাত্র সৈকতের অবস্থান জানতে চায়। আমরা তা না জানালে আঃ রাজ্জাকসহ দুর্বত্ত চাপাত,রড,লাঠি ও চাকু নিয়ে আমাদের উপর আক্রমন করে। তাদের আঘাতে সোহেল,নুর আমীন,আবু দাউদ,নিশানসহ ১৫জন মারপিট করে গুরুতর আহত করে। এসময় তারা আমাদের কাছ থেকে ও হোস্টেলে ঠুকে নগদ ৭৮ হাজার ৫শ টাকা ও বেশ কিছু মোবাইল নিয়ে যায়। ছাত্রদের চেঁচামেচিতে স্থানীয়রা ছুটে এলে দুর্বত্তরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী আহতদের পাংশা হাসপাতালে ভর্তি করে। এব্যাপারে ইনিস্টিটউটের ছাত্র সুমন বাদী হয়ে পাংশা থানায় মামলা করেছে। মামলা নং ২। তাং ৪-১-১৮ ইং।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় আশিকুজ্জামান জানান,ভাংচুরকারীরা চিহ্নিত সন্ত্রাসী হিসেবে এলাকায় পরিচিত। কলেজে অধ্যায়নরতদের মাঝে ভীতি সৃষ্টি করে এলাকায় একক অধিপত্য বিস্তারের জন্য এই মহড়া দেয়া হয়েছে। বহিরাগত ছাত্র নুরু জানায়,আমরা এ ঘটনার পর থেকে আতংকে আছি। ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টরা এলাকায় দাপটের সাথে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ রহস্যজনক কারনে এদের গ্রেফতার করছে না।
মামলার বাদী সুমন হোসেন জানান,আসামীরা মামলা প্রত্যাহারের জন্য আমার জীবন নাশের হুমকী দিচ্ছে। এজন্য ভয়ে ভয়ে সময় কাটাই।
পাংশা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোফাজ্জেল হোসেন জানান,আসামীদের গ্রেফতারের জোর প্রচেষ্টা চলছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.