অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

ফিলিস্তিনের পাশে ছিলেন ম্যারাডোনা

Print

অনলাইন ডেস্ক : সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার ডিয়েগো ম্যারাডোনার প্রয়াণে কাঁদছে আর্জেন্টিনাসহ পুরো ফুটবল বিশ্ব। তবে ফিলিস্তিনের মানুষেরা তার মৃত্যুতে স্তব্ধ হয়ে গেছে। ম্যারাডোনা ছিলেন ইসরাইলের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের সমর্থক। আর সেকারণেই দেশটির নাগরিকদের হৃদয়ে এক বিশেষ জায়গা গড়ে নিয়েছিলেন ম্যারাডোনা।

সারা বিশ্বেই ফিলিস্তিনের মানুষদের অধিকার নিয়ে ম্যারাডোনা ছিলেন আপোষহীন। ইসরায়েলের সন্ত্রাস এবং নির্বিচার অত্যাচার-নির্যাতনের তুমুল প্রতিবাদ করতেন। কখনো কখনো ম্যারাডোনাকে দেখা গেছে, ফিলিস্তিনের পতাকা দুহাতে উঁচিয়ে তুলে ধরতে।

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ দেখতে এসে মস্কোয় এক বৈঠকে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে দেখা করেন ম্যারাডোনা। আব্বাসকে বুকে ঝাপটে ধরে তিনি বিখ্যাত উক্তিটি বলেন, ‘হৃদয় দিয়েই অনুভব করি, আমি একজন ফিলিস্তিনি।’

ম্যারাডোনার ফিলিস্তিন সমর্থনের ব্যাপারটি সর্বসম্মুখে আসে ২০১২ সালে। তখন তিনি বলেছিলেন, ‘আমি তাদের সম্মান করি এবং তাদের প্রতি সহানুভূতিশীল। কোনো ভয় ছাড়াই ফিলিস্তিনিদের সমর্থন জানাই।’ এর দু’বছর পর ২০১৪ সালে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় দুই হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়। তখন এই নৃশংসতার প্রতিবাদ করেন ম্যারাডোনা। এ ঘটনাকে তিনি ‘লজ্জাজনক’ হিসেবে বর্ণনা করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

ফিলিস্তিনিদের কাছে ঠিক কেমন ছিলেন ম্যারাডোনা? এর উত্তরে ফিলিস্তিনের এক সাংবাদিক রামজি বারাউদি টুইটারে লেখেন, ‘ফিলিস্তিনে আপনি কখনোই ম্যারাডোনাকে ঘৃণা করতে দেখবেন না। একমাত্র অপশন হচ্ছে, তাকে ভালোবাসতে হবে। আপনি কখনোই তার বিরুদ্ধে কোনো নেতিবাচক কথাও বলতে পারবেন না সেখানে।’




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: