অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী

ফুলও ফিরিয়ে দিলেন খালেদা

Print

দৈনিক চিত্র রিপোর্ট: নীরবে জন্মদিন পার করলেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। জন্মদিন উপলক্ষে প্রতিবছর ১৫ই আগস্ট প্রথম প্রহরের মতো কেক কাটেননি এবার। ২০১৫ সালে প্রথম প্রহরের বদলে ১৫ই আগস্ট সন্ধ্যা রাতে নেতাকর্মীদের নিয়ে কেক কেটেছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন। এবার সেটাও করেননি। খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে রোববার রাতে নেতাকর্মীদের কেউ কেউ ফুলের তোড়া নিয়ে গেলেও ফুল নিয়ে তাদের গুলশান কার্যালয়ের ভেতরে যেতে দেয়া হয়নি। আগেই দলীয় ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের প্রতি আনুষ্ঠানিকতা না করার মৌখিক বার্তা দেয়া হয় কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের তরফে। তবে খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল বিকালে দলের নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দোয়া মাহফিল করেছে বিএনপি।
এদিকে রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে গুলশানে নিজের রাজনৈতিক কার্যালয়ে যান খালেদা জিয়া। এ সময় কয়েক শ’ নেতাকর্মী সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে তাকে শুভেচ্ছা জানান। গাড়ি থেকে নেমে হাত নেড়ে কর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর কার্যালয়ে ঢোকেন। রাত সোয়া ১২টা পর্যন্ত কার্যালয়েই অবস্থান করেন তিনি। এ সময় ?বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, জয়নাল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী, আবদুল কাইয়ুম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, মহিলা দলের সভানেত্রী নুরী আরা সাফা ও সাধারণ সম্পাদক শিরীন সুলতানা সহ বেশ কয়েকজন সিনিয়র নেতা চেয়ারপারসন কার্যালয়ে যান। কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, উপস্থিত নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়াকে অনানুষ্ঠানিকভাবে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে ফুলের তোড়া নিয়ে এসেছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। কিন্তু নিরাপত্তা কর্মীরা তাকে বলেন, ‘স্যার, ফুল নিয়ে যেতে বারণ রয়েছে।’ পরে তিনি ফুলের তোড়া গাড়িতে রেখেই গুলশান কার্যালয়ে ঢুকেন। আরো কয়েকজন নেতাকে নিজের গাড়িতে ফুল রেখে কার্যালয়ে ঢুকতে দেখা গেছে। নেতারা জানান, খালেদা জিয়া সবাইকে বলেছেন, আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘজীবন কামনায় তারা সুবিধামতো দোয়া মাহফিল ও বিভিন্ন মসজিদ ও মন্দিরে প্রার্থনা সভা করবে।
দোয়া মাহফিল
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে তার দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা কামনা করে দোয়া মাহফিল করেছে বিএনপি। গতকাল বিকালে নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই দোয়া হয়। দোয়া মাহফিলে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবার তার জন্মদিনের অনুষ্ঠান বাতিল করেছেন। দেশের যে বর্তমান অবস্থা, রাজনৈতিক-সামাজিক এবং বন্যার কারণে যে অবস্থা তৈরি হয়েছে, সেই কারণে তিনি মনে করেছেন, জন্মদিনের কোনো অনুষ্ঠান পালন করা সমীচীন নয়। মির্জা আলমগীর বলেন, আজকে আমরা তার দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করেছি। দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছি। আমরা সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান সাহেবের সুস্বাস্থ্য কামনা করেছি। আরাফাত রহমান সাহেবের রুহের মাগফেরাত কামনা করেছি। বিএনপি মহাসচিব বলেন, দলের যেসব নেতা ইন্তেকাল করেছেন, শাহাদাতবরণ করেছেন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেছি। বন্যার্তরা যারা দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন, তাদের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য দোয়া করেছি। দেশের শান্তি-সমৃদ্ধির জন্য দোয়া করেছি। দেশে যেন গণতন্ত্র ফিরে আসে তার জন্য দোয়া করেছি। দোয়া মাহফিলে অন্যদের মধ্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, মোহাম্মদ শাহজাহান, শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবীর খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, কেন্দ্রীয় নেতা শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, সানাউল্লাহ মিয়া, কামরুজ্জামান রতন, নুরে আরা সাফা, শিরীন সুলতানা, আমিনুল ইসলাম, আবদুস সালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম বাবুল, আবদুল আউয়াল খান, অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, বেলাল আহমেদ, আসাদুল করিম শাহীনসহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: