অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী

বালিয়াকান্দির ১১২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নেই

Print

বালিয়াকান্দি প্রতিনিধি : রাজবাড়ীর জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার ১৪৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১২টিতে নেই শহীদ মিনার। উপজেলার কোন মাদ্রাসাতেও প্রতিষ্ঠিত হয়নি শহীদ মিনার। প্রতিষ্ঠান গুলো জাতীয় দিবস পালন করে না। বিভিন্ন জাতীয় দিবসে ওইসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা দিনটি কাটিয়ে দেয় ছুটির আমেজে। এতে করে উপজেলার কয়েক হাজার শিক্ষার্থী মহান স্বাধীনতা দিবস, বিজয় দিবস ,মহান শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসের মতো গুরুত্বপূর্ন দিনগুলোর মৌলিক শিক্ষা ও তাৎপর্য উপলব্ধি করতে পারে না। তারা শহীদ স্মরনে শ্রদ্ধাঞ্জলী নিবেদনের সামান্য তম সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
স্থানীয় শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বালিয়াকান্দি উপজেলায় মোট ৬টি কলেজ, ৩২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ১২টি মাদ্রাসা, ৯৮টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ,২০ টি কিন্ডার গার্টেন সহ প্রায় ২শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এর মধ্যে ৬টি কলেজ, ২১ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার রয়েছে। দেড় শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার গড়ে ওঠেনি। এমনকি উপজেলার ১২টি মাদ্রাসার একটিতেও কোন শহীদ মিনার নির্মিত হয়নি। যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার আছে এর অধিকাংশ স্থানীয় উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত। জাতীয় দিবস গুলোতে শহীদ মিনার বিহীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে কেউ কাটান ছুটির আমেজে আবার কেউ শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদনের জন্য তৈরী করেন বাঁশ , কাঠ ও কলা গাছের শহীদ মিনার।
উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল মতিন ফেরদৌস জানান, আমাদের ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে মাতৃভাষা বাংলা ও স্বাধীনতা পেয়েছি। শহীদ মিনার শহীদের রক্তে ভেজা বাংলা ভাষা ও স্বাধীনতা ছিনিয়ে আনার প্রতীক । তাই নতুন প্রজন্মের কাছে ভাষা আন্দোলন ও স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাস স্মরন করাতে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মান করা দরকার।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: