অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই রমযান, ১৪৪০ হিজরী

বিশ্ব ইজতেমায় এবার আখেরি মোনাজাত ও হেদায়েতি বয়ান বাংলায়

Print

গাজীপুর থেকে সংবাদদাতা : লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানের উপস্থিতিতে ইবাদত, বন্দেগি, জিকির-আসকার আর আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে মুখর টঙ্গীর তুরাগপাড়ের বিশ্ব ইজতেমা ময়দান। সোনাভান বিবির টঙ্গী শিল্প শহরের ইজতেমা মাঠে পবিত্র কোরআন ও হাদিসের আলোকে বয়ান চলছে আজ।
এবার বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত ও হেদায়েতি বয়ান বাংলায় প্রদান করা হবে। টঙ্গীর তাবলিগের মুরব্বী গিয়াসউদ্দিন এ তথ্য জানিয়েছেন। তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপের শেষ দিন আগামীকাল ১৪ জানুয়ারি রোববার। তাবলিগ শীর্ষ জামাতের মুরব্বীদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। মুরব্বী গিয়াসউদ্দিন বলেন, এবার বিশ্ব ইজতেমায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের কাকরাইল মসজিদের মাওলানা হাফেজ মোহাম্মদ জোবায়ের। আখেরি মোনাজাতের আগে হেদায়তি বয়ানও বাংলায় করা হবে। বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন এ বয়ান করবেন।
রোববার সকাল ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে ইজিতেমার প্রথম ধাপের আখেরি মোনাজাত শুরু হবে।
ইজতেমা সূত্র জানায়, আজ বাদ ফজর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মো. নূরুর রহমান। এ ছাড়া দ্বিতীয় দিন বয়ান করবেন বাংলাদেশের মাওলানা ড. মো. জাহাদ, মাওলানা ফারুক হোসেন, মাওলানা মো. নূরুর রহমান।
দুদিন ধরে ইজতেমা মাঠে সার্বক্ষণিক ইবাদত-বন্দেগিতে মগ্ন রয়েছেন লাখ লাখ দেশি-বিদেশি মুসল্লি। প্রতিদিন ফজর থেকে এশা পর্যন্ত ইজতেমা মাঠে ঈমান, আমল, আখলাক ও দ্বীনের পথে মেহনতের ওপর আমবয়ান অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
ইজতেমার দ্বিতীয় দিন তাবলিগের ছয় ওছুলের মধ্যে দাওয়াতে দ্বীনের মেহনতের ওপর গুরুত্বারোপ করে বয়ান করা হয়। বয়ানে বলেন, মোহতারাম ভাই ও দোস্ত বুজুর্গ, আল্লাহতায়ালা আপনাকে আমাকে দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন এবং আল্লাহতায়ালা এটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, দুনিয়াতে যে একবার আসবে তাকে মৃত্যুবরণ করতে হবে। আল্লাহপাকের এ সিদ্ধান্তের কোনো পরিবর্তন হবে না। দুনিয়া হচ্ছে- ধোঁকার ঘর। এ দুনিয়া হচ্ছে- ধোঁকার জীবন। মিছে এ দুনিয়ার আরাম-আয়েশের কথা ভুলে গিয়ে আখেরাতের কথা চিন্তা করুন।
৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আজ দ্বিতীয় দিন। উত্তরের হিমেল হাওয়া আর কনকনে শীত উপেক্ষা করে লাখো মুসল্লি বয়ান, তাশকিল, তাসবিহ-তাহলিলে কাটাচ্ছেন। তীব্র শীতের কারণে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া মুসল্লিদের প্যান্ডেলের বাইরে যেতে দেখা যায়নি। শীতবস্ত্র, মুড়ি দিয়ে ইজতেমা কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন তারা।
আজ হেদায়েত ও তাশকিলের বয়ান হবে বলে জানা গেছে। কাল রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.