অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২রা জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

ভারতকে কাঁদিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইতিহাস

Print

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট: তিনবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে ৫ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনালে ওঠে প্রথম চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ইতিহাস গড়ল তারা। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ক্যারিবীয় যুবাদের বোলিং তোপে ৪৫.১ ওভারে মাত্র ১৪৫ রানে অলআউট হয় ভারত। জবাবে তিন বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেট হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বাংলাদেশের ভেন্যুই যেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের লাকি ভেন্যু হয়ে থাকল। কারণ ২০০৪ সালে আরো একবার ফাইনাল খেলে তারা। সেবারও যুব বিশ্বকাপের আসরটি বাংলাদেশেই হয়েছিল। পাকিস্তানের কাছে হেরে তখন শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল তারা। আর এবার সেই পাকিস্তানকে কোয়ার্টার ফাইনালে হারিয়ে আসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর শেষ চারে স্বাগতিক বাংলাদেশকে হারিয়ে ওঠে ফাইনালে। দুর্দান্ত শক্তিশালী ভারতকে ফাইনালে হারিয়ে স্বপ্নের শিরোপা জিতে ক্যারিবীয়রা।

যুব বিশ্বকাপের শিরোপার জন্য ১৪৬ রানের সহজ লক্ষ্য ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সামনে। সেই লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়েও শুরুতে দুই উইকেট হারিয়ে হোঁচট খায় তারা। দুই ওপেনার আউট হয়ে ফিরে যান মাত্র ২৮ রানে।

এরপর অধিনায়ক শিমরন হেটমেয়ার এবং কিসি কার্টি তৃতীয় উইকেটে জুটি বাঁধেন। তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে দলীয় ৬৭ রানে অধিনায়ক হেটমায়ার আউট হওয়ার পর স্প্রিঙ্গার ও গুলি ফিরে যান ১০ রানের ব্যবধানে। এতে ৭৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে যায় ক্যারিবীয়রা। তাই ১৪৬ রানই যেন পাহাড়ের মতো বড় হয়ে দাঁড়ায় তাদের সামনে। তবে কিসি কার্টি ও কিমো পল ষষ্ঠ উইকেটে ধীরস্থিরভাবে সেই পাহাড় জয় করেন। ১২৫ বলে ৫২ রানের মাটি কামরানো ইনিংস খেলেন কার্টি। আর ৬৮ বল থেকে ৪০ রান করেন পল।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: