অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

ভ্যাকসিন এলেও হবে না হার্ড ইমিউনিটি : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Print

অনলাইন ডেস্ক : বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই করোনার টিকা প্রয়োগ করা শুরু হয়েছে। তবে টিকাকরণ শুরু হলেও হার্ড ইমিউনিটি অথবা করোনা সম্পূর্ণ রূপে বিলুপ্ত হয়ে যাবে এমনটি হবে না বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সোমবার এমন আশঙ্কার কথাই জানিয়েছে তারা।

 

ডয়েচে ভেলের এক প্রতিবেদনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন বলেন, ভ্যাকসিন বাজারে এলেও এই বছর অনাক্রমতা তৈরি হবে না। মানতে হবে করোনাবিধিও। ২০২১ সালে জনসংখ্যাগতভাবে অনাক্রমতা বা কঠোর অনাক্রমতা (হার্ড ইমিউনিটি) তৈরি হবে না। তাই করোনাবিধি মেনে চলতে হবে। শারীরিক দূরত্ব, হাত ধোওয়া, মাস্ক পরতে হবে। দ্রুত স্বাভাবিক জীবনে ফেরা নিয়েও সতর্ক হতে বলেছেন তিনি।

 

ওদিকে, বিশ্বের প্রথম সারির স্বাস্থ্য বিশারদরা জানিয়েছেন, উন্নত বিশ্বে টিকাকরণ শুরু হয়েছে। কিন্তু টিকাকরণ সম্পর্কে সন্দেহ আছে অনেকের। আবার ভাইরাস গঠনগত পরিবর্তনের সম্ভাবনা আছে। তাই এই অবস্থায় টিকাকরণ হলেও অনাক্রমতা বা হার্ড ইমিউনিটি হওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে, ব্রিটেনে, জার্মানি, সিঙ্গাপুরসহ আমেরিকায়ও শুরু হয়েছে গন টিকাকরণ। মূলত অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকা, বায়োএনটেক-ফাইজার, মডার্নার টিকা প্রয়োগের অনুমোদন দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দেশগুলো।

স্বামীনাথন বলেন, সারা বছর মেনে চলতে হবে করোনাবিধি। যেভাবে গবেষক, বিশেষজ্ঞরা কাজ করে চলেছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়।

 

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসের নতুন একটি স্ট্রেইন এরইমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ছড়িয়ে গেছে। ব্রিটেন থেকে উৎপত্তি হওয়া ভাইরাসটির নতুন স্ট্রেইন নিয়ে আতঙ্কিত পুরো বিশ্ব। বিশেষজ্ঞরা জানান, নতুন ধারার এই ভাইরাস আগের করোনাভাইরাস থেকে ৭০ শতাংশ বেশি ক্ষতিকর। এবং এটি ৬০ শতাংশ বাড়তি হারে ব্রিটেনের শহর লন্ডনে আঘাত হেনেছিল।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: