অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ই সফর, ১৪৪৩ হিজরী

যুদ্ধাপরাধী, খুনি যেন আর ক্ষমতায় আসতে না পারে : প্রধানমন্ত্রী

Print

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা যুদ্ধাপরাধী, খুনি ও আগুন দিয়ে মানুষ হত্যা করেছে, তারা যেন আর ক্ষমতায় আসতে না পারে এজন্য প্রতিটি শ্রেণি পেশার মানুষকে সজাগ থাকতে হবে।
তিনি বলেন, যারা এতিমের টাকা চুরি করে, আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মেরেছে, জনগণের টাকা মেরে বিদেশে পাচার করেছে, রাজাকারদের মন্ত্রী বানিয়েছে তারা এ দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না। তারা ক্ষমতায় এসে কোনো উন্নয়ন করতে পারে না।
বুধবার ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় সভাপ্রধান হিসেবে বক্তব্যকালে প্রধান মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, সরকার গত ৯ বছরে অনেক উন্নয়ন করেছে। এ সব উন্নয়নের কথা জনগণের মধ্যে তুলে ধরতে হবে। শুধু যা করা হয়েছে তাই নয়, যে সব ক্ষেত্রে উন্নয়ন করা হবে তাও বিস্তারিত তুলে ধরতে হবে।
তিনি বলেন, আমরা আগামী ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী, ২১ সালে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করব। ২১ সালে আমরা উন্নয়নশীল দেশে পৌঁছাব এবং ৪১ সালে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে পরিচিত করব।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষ এখন স্বাধীনতার সুফল ভোগ করছে। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার জন্য এ দেশের আপামর জনগণের সমর্থন কামনা করেন তিনি।
জনসভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ওবায়দুল কাদের । এছাড়া জনসভা সঞ্চালনা করেন দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল।
জনসভা পরিচালনা করেন দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল। দুপুর আড়াইটায় পবিত্র কোরআন তেলোয়াত, গীতা, বাইবেল ও ত্রিপেটক থেকে পাঠের মাধ্যমে জনসভা শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে ওবায়দুল কাদের সূচনা বক্তব্য রাখেন।
জনসভায় জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, স্বাস্থ্যমস্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, লে কর্নেল অব ফারুক খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, কবি নির্মলেন্দু গুণ, ঢাকা সিটি কর্পোরেশন দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন, মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরের সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহ, মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সভাপতি হাজী আবুল হাসনাত, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হারুর অর রশিদ, আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সদস্য সচিব ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সাফিয়া খাতুন , শ্রমিক লীগ সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ, কৃষক লীগ সভাপতি, মোতাহার হোসেন মোল্লা, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাওসার, মহিলা লীগের সভাপতি নাজমা আক্তার ও ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বক্তব্য রাখেন ।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: