অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

শেষ ম্যাচ জিতে কোনমতে লজ্জা ঠেকালো ভারত

Print

স্পোর্টস ডেস্ক : ৩ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ২ ম্যাচ জিতে আগেই সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলেছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে শেষ ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে হোয়াইটওয়াশের সুখকর অনুভূতি হয়তো তাদের ভাগ্যে জুটবে না। সিরিজের শেষ ম্যাচ ১৩ রানে জিতে নিয়ে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়িয়েছে ভারত।

বুধবার টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। শুরুতেই শিখর ধাওয়ানকে হারায় তারা। শুভম গিল ৩৩ রানের বেশি করতে পারেননি। দলীয় ১২৩ রানের মাঝেই চার উইকেট হারালে ব্যাকফুটে চলে যায় তারা। বিপদ আরও বাড়ে যখন বিরাট কোহলি সাজঘরে ফেরেন। দলীয় ১৫২ রানে পঞ্চম উইকেট হিসেবে তার বিদায় হলে অল্পেই গুটিয়ে যাওয়ার শঙ্কায় কাঁপতে থাকে টিম ইন্ডিয়া। এর আগে ৬৩ রান করেন ভারত অধিনায়ক।

বিপদের মুহূর্তে দলের ত্রাতা হয়ে আসেন দুই অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া ও রবীন্দ্র জাদেজা। তারা গড়েন ১৫০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি। শেষ পর্যন্ত পান্ডিয়া ৯২ ও জাদেজা ৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

তাদের দুজনের জুটির উপর ভর করে শেষ পর্যন্ত ৫০ ওভার শেষে ৩০২ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করে ভারত। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দুই উইকেট শিকার করেন অ্যাস্টন আগার। একটি করে উইকেট নেন জশ হ্যাজেলউড, শন অ্যাবট ও অ্যাডাম জাম্পা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ওপেনার লেবুশেইনির উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। এ দিন ব্যর্থ হন আগের দুই ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান স্টিভেন স্মিথও। তবে একপাশ আগে রেখে দলকে জয়ের পথেই রাখেন অধিনায়ক ফিঞ্চ। তবে তিনি ৭৫ রান করে ১৫৮ রানের মধ্যেই ৫ উইকেট হারিয়ে বিপদে পরে যায় অস্ট্রেলিয়া। সেখান থেকে অ্যালেক্স ক্যারে ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টা করেন।

আগের দুই ম্যাচে ঝড়ো ব্যাটিং করা ম্যাক্সওয়েল এ ম্যাচেও ঝড় তোলেন। মাত্র ৩৮ বলে ৩ চার ও ৪ ছয়ে ৫৮ রান করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ৪৯.৩ ওভারে ২৮৯ রানে গুটিয়ে যায় অজিরা। ফলে ১৩ রানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ভারত।

ভারতের পক্ষে শার্দুল ঠাকুর ১০ ওভারে ৫১ রান দিয়ে শিকার করেন ৩ উইকেট। বুমরাহ এবং নটরাজন ২টি করে উইকেট পেয়েছেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: