অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ১০ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

সম্ভাবনাকে পরিকল্পিতভাবে কাজে লাগাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

Print

অনলাইন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের জনসংখ্যা বেশি, আয়তন কম, এটুকু জায়গার মধ্যে সব মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা, বাসস্থানসহ সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পরিকল্পিতভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, National Spatial Data Infrastructure (NSDI) থাকলে আমরা আরও ভালভাবে এবং পরিকল্পিত ভাবে কাজ করতে পারবো।

বুধবার (০১ জুন) সকালে হোটেল সোনারগাঁওয়ে NSDI গঠনের লক্ষ্যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ জরিপ অধিদপ্তর ও জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (জাইকা) কতৃক যৌথভাবে আয়োজিত আন্তর্জাতিক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দক্ষিণের বিভিন্ন দ্বীপ আমাদের ঝড় জলোচ্ছ্বাস দুর্যোগ থেকে রক্ষা করবে। নতুন করে বিভিন্ন চর জাগছে। এগুলোকে কিভাবে ব্যবহার করা যায় সে বিষয়ে পরিকল্পনা করতে হবে। এ দেশটা আমাদের গড়ে তুলতে হবে। আমাদের ভৌগলিক অবস্থান সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে প্রাচ্যেও প্রাচ্যাতের সেতু বন্ধনের কাজ করতে পারে বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ জরিপ অধিদপ্তর উপকূলবর্তী এলাকার ৪৮টি মানচিত্র প্রণয়ন করে দেশের সমুদ্রসীমা নির্ধারণে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সহযোগিতা করেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে এই অধিদপ্তর বিভিন্ন স্কেলের ডিজিটাল মানচিত্র প্রণয়ন সম্পন্ন করেছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, NSDI গঠনে স্বল্প ও দীর্ঘ-মেয়াদী পরিকল্পনা প্রণয়ন, কর্মকৌশল নির্ধারণ ও প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের জন্য প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে একটি জাতীয় কমিটি গঠন করা হবে। সেজন্য একটা আইন প্রণয়ন করতে হব। NSDI-তে সব ডাটা থাকবে, যাতে কেউ যেন এর অপব্যবহার করতে না পারে।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, উন্নয়নের প্রতিটি সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে সম্মানজনক। বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দা সত্ত্বেও দেশের অর্থনীতি আজ খুব দৃঢ় অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, সামষ্টিক অর্থনীতির প্রতিটি সূচক ইতিবাচক ধারায় এগুচ্ছে। নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও দেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২৯ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। গত ৬ বছর ধরে আমরা গড়ে ৬.৩ শতাংশ হারে জিডিপি অর্জন করেছি। এ বছর জিডিপি বৃদ্ধির হার ৭ শতাংশ হবে।

ঢাকার মিরপুর-১৪ নম্বর দামালকোটে স্থাপিত বাংলাদেশ জরিপ অধিদফতরের ডিজিটাল ম্যাপিং সেন্টার ভিডিও করফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কাজী হাবিবুল আওয়াল। অনুষ্ঠান অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে, সার্ভেয়ার জেনারেল অব বাংলাদেশ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল খায়ের, বাংলাদেশে জাইকার প্রধান প্রতিনিধি মিকি ওহাতায়েদা।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: