অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ই রমযান, ১৪৪০ হিজরী

সিদ্ধান্ত বদলালেন রিচি

Print

বিনোদন প্রতিবেদক : এবার দেশে ফিরে কোনো নাটকে অভিনয় করবেন না বলেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রিচি সোলায়মান। কিন্তু প্রিয় অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদারের সঙ্গে কাজের প্রস্তাব আর ফেরাতে পারেননি তিনি। অবশেষে সিদ্ধান্ত বদল করতে হয়েছে রিচিকে। পরিচালক রহমতুল্লাহ তুহিনের নির্দেশনায় ‘যখন কখনো’ ধারাবাহিকে বরেণ্য অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদারের বড় মেয়ে আফরিনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এরমধ্যে ধারাবাহিকটির শুটিং শুরু করেছেন রিচি। নাটকে দেখা যাবে দীর্ঘ বারো বছর পর আফরিন দেশে ফিরে আসে তার মায়ের কাছে। নাটকটিতে অভিনয় করা নিয়ে রিচি বলেন, ‘এই নাটকেরই একটি অংশ এর আগে আমেরিকাতে ধারণ করা হয়েছে। দেশে এসে আমার প্রযোজিত নাটকেই প্রথম অভিনয় করলাম ছোট্ট একটি চরিত্রে। আমরা যারা টিভি নাটকে অভিনয় করি, তাদের অনেকেরই স্বপ্ন থাকে, ইচ্ছে থাকে ফেরদৌসী আপার সঙ্গে অভিনয় করার। আমারও স্বপ্ন ছিলো। সেই স্বপ্ন অবশেষে পূরণ হলো। এমন বরেণ্য অভিনেত্রীর সঙ্গে অভিনয় করার মধ্যে ভালোলাগা হচ্ছে এটাই যে, তারা যখন অভিনয় করেন, তখন রিঅ্যাকশানে যা করা হয়, তা-ই অভিনয় হয়ে যায়। আমার অনেক বড় সৌভাগ্য যে, ফেরদৌসী আপার সঙ্গে অভিনয় করতে পেরেছি।’ ‘যখন কখনো’ ধারাবাহিকটি প্রতি শনি ও রোববার রাত ৮টা ২০ মিনিটে এনটিভিতে প্রচার হচ্ছে। রিচি আরো জানান, শিগগিরই তিনি চয়নিকা চৌধুরী ও সুমন আনোয়ারের নির্দেশনাতেও অভিনয় করবেন। আমেরিকা ফিরে যাবার আগে এর বাইরে আর কোনো নাটকে তিনি অভিনয় করবেন না বলেও জানিয়েছেন রিচি। উল্লেখ্য, গত ৮ ডিসেম্বর দেশে ফিরেছেন রিচি সোলায়মান। এবার তিনি দেশে ফিরেছেন শুধুই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সময় কাটাবেন বলে। তবে দেশে ফেরার পর তার খুব কাছের কয়েকজন পরিচালক চাইছেন তিনি যেন একটি দুটি নাটকে অভিনয় করেন। কিন্তু তারপরও রিচি চাইছিলেন অভিনয়ের বাইরে থেকে সময়টা কাটাতে। কারণ এবারই প্রথম তিনি তার ছেলে রায়ান’সহ মেয়ে ইলমাকে নিয়ে দেশে ফিরেছেন। ইলমার বয়স এখন পাঁচ মাস চলছে। এরইমধ্যে রংপুরে গিয়েছিলেন রিচি। কারণ তার নানী ইলমাকে দেখতে চেয়েছিলেন। নানীর ইচ্ছে পূরণ করে ইলমাকে দেখিয়েও এনেছেন তাকে। এতে রিচি দারুণ খুশি।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.