অনলাইন নিউজপেপার সাইট ঢাকা, ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জিলহজ্জ, ১৪৪২ হিজরী

৬ পৌরসভায় আ.লীগ ৩, বিএনপি ৩

Print

নিউজ ডেস্ক : গত ৩০ ডিসেম্বর ১৯টি পৌরসভার স্থগিত হওয়া ৫১টি কেন্দ্রে পুনঃভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ শেষে গণনা শুরু হয়।

এর মধ্যে নরসিংদীর মাধবদী ও নোয়াখালীর চৌমুহনী পৌরসভার পুনঃভোটেও জালভোট ও অনিয়মের কারণে দু’টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়। তবে এসব পৌরসভায় মেয়র পদে বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো ফলাফলে মেয়র পদে বিজয়ী ও নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীদের নাম উল্লেখ করা হলো-

নরসিংদীর মাধবদী পৌরসভা : ১২টি কেন্দ্রের পুনঃভোটের ফলাফলের ভিত্তিতে বিজয়ী হয়েছে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক। তিনি ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ১২ হাজার ১শ ৯৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাজী মোহাম্মদ ইলিয়াস ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৮ হাজার ৩শ ৩২ ভোট। তবে নির্বাচনে ১২ কেন্দ্রের মধ্যের ভিটিপাড়া কেন্দ্রে আবারো নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।

কুড়িগ্রামের উলিপুর পৌরসভা : মেয়র পদে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তারিক আবুল আলা। ধানের শীষ প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ৮ হাজার ৯৯৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাজেদুর রহমান খেজুর গাছ প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৮৫৩ ভোট। তৃতীয় অবস্থানে থাকা আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুল হামিদ নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৪৪৬ ভোট।

স্থগিত দুটি ভোট কেন্দ্রের পুনঃভোটের ফলাফলের ভিত্তিতে এ ফলাফল নির্ধারিত হয়েছে।

নীলফামারী সৈয়দপুর পৌরসভা : বিএনপির আমজাদ হোসেন সরকার সাত হাজার আটশ’ ৬৫ ভোটের ব্যবধানে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ২৯ হাজার ৯১২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রাথী সাখাওয়াৎ হোসেন খোকন নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২২ হাজার ৪৭ ভোট।

নোয়াখালী বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভা : আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আক্তার হোসেন ফয়সল নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৪ হাজার ৭৮৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী জহির উদ্দিন হারুন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ১০ হাজার ৮০৭ ও ইসলামী ঐক্যজোট প্রার্থী জাকির হোসেন জাসেদ এক হাজার ৩৪ ভোট পেয়েছেন।

ঠাকুরগাঁও সদর পৌরসভা : স্থগিত ৩টি ভোটকেন্দ্রে পুনঃভোট শেষে বিজয়ী হয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছোট ভাই মির্জা ফয়সল আমিন। ধানের শীষ প্রতীকে তিনি পেয়েছেন দুই হাজার ৮শ ৬৭টি ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তাহমিনা আক্তার মোল্লা নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৯শ ৭৬টি ভোট।

মাদারীপুরের কালকিনি পৌরসভা : স্থগিত দুটি কেন্দ্রে পুনঃভোটের ফলাফলে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এনায়েত হোসেন। তিনি নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ৭ হাজার ১শ ২৯টি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মসিউর রহমান সবুজ নারীকেল গাছ প্রতীকে পেয়েছেন ৬ হাজার ৮৮ ভোট।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

%d bloggers like this: